সোমবার, ডিসেম্বর ১৮, ২০১৭, ৬:০০ পূর্বাহ্ণ

তিনি কুয়েতপ্রবাসী ব্যবসায়ী। আগামী নির্বাচনে লক্ষ্মীপুর-২ (রায়পুর ও সদরের আংশিক) আসনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নপ্রত্যাশী। এলাকায় আসা-যাওয়ার করছেন গত এক বছর ধরে। নানা সামাজিক কাজে অংশ নিচ্ছেন। গতকাল রোববার দুস্থদের মধ্যে কম্বল বিতরণের জন্য ঢাকা থেকে এলেন হেলিকপ্টারের চড়ে। তিনি কাজী শহিদ ইসলাম। সবার কাছে পরিচিত পাপুল নামে।

গতকাল বেলা ১১টায় রায়পুর মার্চেন্টস একাডেমির মাঠে হেলিকপ্টারটি অবতরণ করে। এ সময় তাঁর সঙ্গে ছিলেন স্ত্রী সেলিনা ইসলাম ও মেয়ে। এ সময় উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল খোকন অল্প কিছু দলীয় নেতা-কর্মী ও সমর্থক নিয়ে ফুল দিয়ে তাঁকে স্বাগত জানান। এ সময় আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ নেতাদের দেখা যায়নি।

হেলিকপ্টার থেকে নেমে তিনি ছয়টি গাড়ি ও অর্ধশতাধিক মোটরসাইকেলের বহর নিয়ে রায়পুর উপজেলা মিলনায়তনে মুক্তিযোদ্ধাদের সংবর্ধনায় যোগ দেন। এরপর বিকেল পাঁচটায় তিনি সোনাপুর মাদ্রাসা মাঠে ১২ হাজার কম্বল বিতরণ করেন।

দুটি অনুষ্ঠানেই নৌকার পক্ষে ভোট চান কাজী শহিদ। অনুষ্ঠানে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ রায়পুরে এখন শক্তিশালী। আগামী নির্বাচনেও নৌকায় ভোট দেবেন। দেশের উন্নয়ন অব্যাহত রাখতে আওয়ামী লীগের বিকল্প নেই।

দলীয় সূত্র জানায়, কাজী শহিদকে নিয়ে আওয়ামী লীগের মধ্যে গত এক বছর ধরে বিরোধ চলছে। উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও পৌরসভার মেয়র হাজী ইসমাইল খোকন তাঁর পক্ষে অবস্থান নিলেও অন্যদের মধ্যে অসন্তোষ রয়েছে। তিনি এক বছর আগে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতা-কর্মীদের ২৮টি মোটরসাইকেল দেন।

উপজেলা যুবলীগের আহ্বায়ক মঞ্জুর হোসেন বলেন, কাজী শহিদ রায়পুর আওয়ামী লীগের কোনো পদে নেই। এমনকি সদস্যও নন। সমাজসেবার নামে তিনি হেলিকপ্টারে এসে কৌশলে মহড়া দিচ্ছেন। আসলে তিনি একটি দলের পক্ষে হয়ে আওয়ামী লীগকে দ্বিধাবিভক্তি করছেন।

এ ব্যাপারে কাজী শহিদের সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করে তাঁর বক্তব্য জানা যায়নি। তাঁর মুঠোফোনে রিং হলেও তিনি সাড়া দেননি। তবে তাঁর ঘনিষ্ঠ উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইসমাইল খোকন বলেন, আওয়ামী লীগ থেকে কাজী শহিদ এ আসনে মনোনয়নপ্রত্যাশী। মনোনয়ন পেতে ও এমপি নির্বাচিত হওয়ার জন্য এলাকায় কাজ করছেন তিনি। এলাকার বেকার শতাধিক যুবককে চাকরি দিয়েছেন। নিজ উদ্যোগে রায়পুরে উন্নয়মূলক কর্মকাণ্ড করছেন। দলকে দ্বিধাবিভক্তির অভিযোগ সঠিক নয় বলে জানান তিনি।