শুক্রবার, মে ২৫, ২০১৮, ১১:৪৮ অপরাহ্ণ

নিউজ মিডিয়া ২৪:  ডেস্ক: বন্ধুত্বপূর্ণ পরিবেশে ভারতের সঙ্গে অমীমাংসিত সমস্যাগুলো সমাধান হবে বলে আশা করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শুক্রবার দুপুরে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে বিশ্বভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাবর্তন অনুষ্ঠানে রাখা বক্তব্যে এমন আশার কথা জানান তিনি।

এ সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘মহান মুক্তিযুদ্ধে ভারত- বাংলাদেশের পাশে দাঁড়িয়েছে। আমরা আনন্দঘন পরিবেশে ছিটমহল বিনিময় করেছি। বিশ্বে যা একটি বিরল ঘটনা। ভবিস্যতেও যেকোনো সমস্যা আমরা বন্ধুত্বপূর্ণ পরিবেশে সমাধান করতে পারবো।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘মহান মুক্তিযুদ্ধে ভারত বাংলাদেশের এক কোটি মানুষকে আশ্রয় দিয়েছে। এই অবদানের কথা অামরা ভুলবো না।’

তিনি আরও বলেন, ‘অামাদের শত্রু  একটাই, দারিদ্র। আমাদের এই অঞ্চলকে দারিদ্রমুক্ত ও ক্ষুধামুক্ত করতে চাই। সেই লক্ষ্য নিয়ে কাজ করছে সরকার।’

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের আমরা আশ্রয় দিয়েছি মানবিক কারণে। এখন আমরা চাই তারা দ্রুত দেশে ফিরে যাক।’

রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমারের ওপর চাপ প্রয়োগ করতে আবারও ভারতের সহযোগিতা চান তিনি।

অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যের আগে, বক্তব্য রাখেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। তিনি জানান, পশ্চিমবঙ্গে এবার বঙ্গবন্ধু ভবন করতে চায় তার সরকার।

অনুষ্ঠানে সবশেষে বক্তব্য রাখেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি বলেন, বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ভারতের জন্য অনুকরণীয়। ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশ হওয়ার লক্ষ্য অর্জনে ভারত- বাংলাদেশকে সব ধরনের সহযোগিতা ও পূর্ণ সমর্থন দেবে বলে জানান তিনি।

শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ অভিষ্ট লক্ষ্যে পৌঁছুবে বলেও আশা করেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী।