প্রিয়াঙ্কার পর এবার বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত লেখিকাকে হুমকি

নিউজ মিডিয়া ২৪: ঢাকা: মার্কিন টিভি সিরিজ কোয়ান্টিকো’র একটি বিতর্কিত পর্বকে ঘিরে হিন্দু জাতীয়তাবাদীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এবার আক্রমণ করছেন বাংলাদেশি বংশোদ্ভূত একজন আমেরিকান লেখককে। শর্বরী জোহরা আহমেদ নামের ওই লেখকে তারা ধর্ষণেরও হুমকি দিচ্ছেন।
বিতর্কিত পর্বটির কাহিনীতে হিন্দু জাতীয়তাবাদীদের একটি সন্ত্রাসী হামলার ষড়যন্ত্রের কথা উল্লেখ করা হয়েছিল। সেখানে প্রধান একটি চরিত্রে অভিনয় করেন বলিউড সুপারস্টার প্রিয়াঙ্কা চোপড়াও। এর আগে তিনিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তীব্র আক্রমণের শিকার হয়েছিলেন ও ওই চরিত্রটিতে অভিনয় করার জন্য দুঃখ প্রকাশ করে ক্ষমা চেয়েছিলেন।
এই কাহিনী রচনায় শর্বরী জোহরা আহমেদের কোনো ভূমিকা না থাকলেও হিন্দু জাতীয়তাবাদীরা তাকে গালাগালি করছে। যেসব লেখক কোয়ান্টিকোর কাহিনী লিখে থাকেন, শর্বরী জোহরা আহমেদ সেই টিমে ছিলেন শুধু প্রথম মওসুমের জন্য। মাত্র দুটো পর্বের কাহিনী রচনার সঙ্গে সরাসরি জড়িত ছিলেন তিনি। তার একটি তিনি একাই লিখেছিলেন, আর দ্বিতীয়টির দু’জন লেখকের তিনি ছিলেন একজন।
শর্বরী জোহরা আহমেদ বারবার তার টাইমলাইনে একথা উল্লেখ করার পরেও, হিন্দু জাতীয়তাবাদীরা তাকে আক্রমণ করেই যাচ্ছে। অনেকেই অভিযোগ করছে, শান্তিকামী হিন্দুদের বিরুদ্ধে ইসলামপন্থীদের প্রচারণার অংশ নিচ্ছেন তিনি।
টুইটারে একজন মন্তব্য করেছেন, কোয়ান্টিকোর কাহিনী লিখতে গিয়ে আপনি যে লিখেছেন ‘ভারতীয়রাই হামলার পরিকল্পনাকারী’, তখন কি আপনার ফ্যান্টাসি কল্পনার সীমা ছাড়িয়ে গিয়েছিল? আপনার মনের গভীরে যে পক্ষপাতিত্ব, ঘৃণা, হিন্দুবিরোধী মনোভাব ও ইসলামের পক্ষ নেওয়ার বিষয়গুলো প্রোথিত আছে, সেকারণেই কি এরকম লিখেছেন?
শর্বরী জোহরা আহমেদ বলেন, তিনি আশা করছিলেন যে, যখন তারা জানতে পারবে এই পর্বটির সঙ্গে তার কোনো সম্পর্ক নেই, তখন তারা চুপ করে যাবেন। কিন্তু সেরকম কিছু হয়নি। আক্রমণের মাত্রা খুব দ্রুতই বেড়েছে। এসব এতোই হিংস্র হয়ে উঠেছে যে, যারা আমাকে সমর্থন করছেন তাদেরও তারা হামলা ও ধর্ষণের হুমকি দিচ্ছে।
হুমকিদাতারা তাকে ভারতবিরোধী ও হিন্দুবিরোধী প্রচারণায় একজন মুসলিম এজেন্ট হিসেবে দেখছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, তারা গুগলে সার্চ করে অথবা স্ক্রিনে যাদের নাম লেখা থাকে সেই তালিকা দেখে জেনে নিতে পারেন, আসল সত্যটা কী।
‘দ্য ব্লাড অফ রোমিও’ নামের এই পর্বটি প্রচারিত হয়েছিল ১ জুন। এতে দেখা যায়, অ্যালেক্স পারিশ নামের প্রধান চরিত্রটি একটি সন্ত্রাসী হামলার পরিকল্পনাকে নস্যাৎ করে দিয়েছেন। ওই এজেন্টের চরিত্রে অভিনয় করেছেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া।
কাশ্মীরে এক সম্মেলনের আগে এই হামলার পরিকল্পনা করা হয়েছিল এবং কাহিনীতে দেখানো হয়েছে, আসলে কয়েকজন হিন্দু জাতীয়তাবাদী এই পরিকল্পনা করেছিলেন। কিন্তু তারা দোষ দিতে চেয়েছিলেন পাকিস্তানিদের। সূত্র: বিবিসি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *