সোমবার, ডিসেম্বর ১৮, ২০১৭, ৬:৩৩ অপরাহ্ণ

বাসের জন্য ‘কত দূর’ নামের একটি অ্যাপ আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করেছে বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট করপোরেশন-বিআরটিসি ও ঢাকা পরিবহন সমন্বয় কর্তৃপক্ষ-ডিটিসিএ। তথ্যপ্রযুক্তি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান বিজনেস অটোমেশন লিমিটেড ও আইডিয়েশন টেকনোলজি সল্যুশনস অ্যাপটি বিআরটিসির সহযোগী হিসেবে তৈরি করেছে।

আজ রোববার গাবতলীতে বিআরটিসি নতুন বাস ডিপোতে অ্যাপটির উদ্বোধন করেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, সচিব মো. নজরুল ইসলাম, ডিটিসির নির্বাহী পরিচালক সৈয়দ আহম্মদ, বিটিআরসির চেয়ারম্যান ফরিদ আহমদ ভুঁইয়া।

বিজনেস অটোমেশন লিমিটেডের একটি লিখিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ঢাকার গণপরিবহন–ব্যবস্থায় শৃঙ্খলা আনতে ডিজিটাল যুগে পা রাখল বিআরটিসি। গণপরিবহন নিয়ে যাত্রীদের দুশ্চিন্তা দূর করতে ‘কত দূর’ অ্যাপটি চালু করল বিআরটিসি। ঢাকার নবীনগর–গাবতলী পথে পরীক্ষামূলকভাবে অ্যাপটি ব্যবহার করা হবে। এর আগে আবদুল্লাহপুর-মতিঝিল এবং নবীনগর–মতিঝিল পথে অ্যাপটি পরীক্ষা করে সফলতা এসেছে।
বিজনেস অটোমেশন লিমিটেডের এন্টারপ্রাইজ ব্যবসার প্রধান শাহেদ ইকবাল প্রথম আলোকে বলেন, নবীনগর-গাবতলী পথে নতুন ১০টি বাস চালু করবে বিটিআরসি। ওই বাসগুলোর পাশাপাশি ঢাকার আবদুল্লাহপুর থেকে মতিঝিলগামী বিআরটিসির বাসে পরীক্ষামূলকভাবে অ্যাপের মাধ্যমে সেবা শুরু হবে। পর্যায়ক্রমে এ অ্যাপের সেবা ঢাকার অন্যান্য পথেও বাড়ানো হবে।

অ্যাপে কী সুবিধা পাওয়া যাবে? এ প্রশ্নের জবাবে শাহেদ ইকবাল জানান, এটি ঢাকা মেট্রোপলিটন এলাকার যাত্রীদের জন্য। বাসের বর্তমান অবস্থান, পথ, স্টপেজ, ভিড়, আসন–সংক্রান্ত দরকারি ফিচার আছে। ‘কত দূর’ অ্যাপ দিয়ে নির্দিষ্ট গন্তব্যে যেতে ইচ্ছুক যাত্রীরা পরবর্তী বাসের যাত্রীসংখ্যা, গন্তব্যে পৌঁছাতে সম্ভাব্য সময় বা যানজটের খবর জানতে পারবেন। সামনের বা পেছনের কোন স্টপেজে গেলে বাসে সিট পেতে পারেন, সে সম্পর্কে ধারণা দেবে। এর ফলে যাত্রীরা ইচ্ছা করলে পরবর্তী বা আগের কোনো স্টপেজ থেকেও সিট নিয়ে বাসে উঠতে পারবেন।

অনুষ্ঠানে ওবায়দুল কাদের বলেন, ঢাকার গণপরিবহন–ব্যবস্থায় শৃঙ্খলা আনতে ডিজিটালাইজেশনের যে যাত্রা শুরু হয়েছে, তা অব্যাহত থাকবে। ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে দ্রুততম সময়ের মধ্যে ভবিষ্যতে বিআরটিসির অন্যান্য পথ ও বাসে প্রযুক্তির নিত্যনতুন ব্যবহার যুক্ত হবে।