ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন গ্রেফতার

নিউজ মিডিয়া ২৪: ঢাকা : মানহানির মামলায় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন গ্রেফতার হয়েছেন।
জানা গেছে, ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে ঢাকার উত্তরা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সোমবার রাত ৯টা ৪৬ মিনিটে উত্তরায় জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রবের বাসা থেকে বের হলে তাকে গ্রেফতার করা হয়।
ডিবির যুগ্ম কমিশনার মাহাবুব আলম গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডিবি কার্যালয়ে নেয়া হয়েছে।
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গ্রেফতারি পরোয়ানা
টেলিভিশনের টকশো’তে সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টির বিরুদ্ধে মানহানিকর বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের বিরুদ্ধে হ্মণবাড়িয়ায় দায়ের হওয়া এক মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। সোমবার বিকেলে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম দ্বিতীয় আদালতের বিচারক ফারজানা আহমেদ এ পরোয়ানা জারি করেন। এর আগে দুপুরে ইংরেজি দৈনিক অবজারভারের ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি আয়েশা আহমেদ লিজা বাদী হয়ে মইনুলের বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করেন।
এ বিষয়ে বাদী পক্ষের আইনজীবী সারোয়ার-ই-আলম জানান, ৫০০/৫০১ ধারায় বাদী লিজা মামলাটি দায়ের করেন। পরে আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে বিকেলে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন।
ভোলায় মামলা
টেলিভিশনের টকশো’তে সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টির বিরুদ্ধে মানহানিকর বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের বিরুদ্ধে এবার ভোলায় মানহানির মামলা করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে ভোলা জেলা যুব মহিলা লীগের আহ্বায়ক খাদিজা আক্তার স্বপ্না বাদী হয়ে চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলাটি দায়ের করেন।
আদালতের বিচারক শরীফ মোহাম্মদ ছানাউল হক মামলাটি গ্রহণ করে অতিরিক্ত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে জুডিসিয়ালি তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। আগামী ২৫ অক্টোবর তদন্ত রিপোর্ট জমা দিতে বলা হয়েছে।
রংপুর ও কুমিল্লায় মামলা
নারী বিদ্বেষী বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের বিরুদ্ধে এবার রংপুর ও কুমিল্লায় মামলা হয়েছে।
রংপুর: সোমবার বিকেলে রংপুরের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্টেট আদালতে এই মামলা করেন নগরীর মুলাটোল এলাকার মিলি মায়া বেগম নামে এক নারী। আদালত সূত্রে জানা গেছে, নারী বিদ্বেষী বক্তব্য দিয়ে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে ৫০০/৫০৬ ও ৫০৯ ধারায় মামলাটি করা হয়। বাদির পক্ষে আইনজীবী আইনুল হোসেন আদালতে মামলাটি দাখিল করেন।
জেলা জজ আদালতের পিপি আব্দুল মালেক বলেন, আদালতের বিচারক আরিফা ইয়াসমিন মুক্তা মামলাটি আমলে নিয়েছেন। আমরা মামলার আসামির বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট চেয়েছি। এ বিষয়ে আদালত এখনো সিদ্ধান্ত জানায়নি।
কুমিল্লা: ব্যারিস্টার মঈনুল হোসেনের বিরুদ্ধে কুমিল্লা আদালতে মানহানির মামলাটি দায়ের করেন সুবীর নন্দী নামে একজন আইনজীবী।
গত রোববার দুপুরে কুমিল্লার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ১নং আমলি আদালতে মামলাটি দায়ের করা হয়। সোমবার মামলাটির শুনানি শেষে সিআর হিসেবে গণ্য করে অধিকতর শুনানির জন্য আগামী ২৩ ডিসেম্বর দিন ধার্য করেন চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. সোহেল রানা ।
আইনজীবি সুবীর নন্দী জানান, মাসুদা ভাট্টিকে চরিত্রহীন বলায় একজন সাংবাদিক হিসেবে তার মানহানি হয়েছে বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে। এতে সাক্ষী করা হয়েছে মাসুদা ভাট্টিসহ ৫ জনকে।
গত ১৬ অক্টোবর একাত্তর টেলিভিশনের টক শো ‘একাত্তরের জার্নাল’ এ ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টি প্রশ্ন করেন, ‘জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে আপনি যে হিসেবে উপস্থিত থাকেন- আপনি বলেছেন আপনি নাগরিক হিসেবে উপস্থিত থাকেন। কিন্তু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকেই বলছেন, আপনি জামায়াতের প্রতিনিধি হয়ে সেখানে উপস্থিত থাকেন।’
মাসুদা ভাট্টির এই প্রশ্নে রেগে গিয়ে মইনুল হোসেন বলেন, ‘আপনার দুঃসাহসের জন্য আপনাকে ধন্যবাদ দিচ্ছি। আপনি চরিত্রহীন বলে আমি মনে করতে চাই। আমার সঙ্গে জামায়াতের কানেকশনের কোনো প্রশ্নই নেই। আপনি যে প্রশ্ন করেছেন তা আমার জন্য অত্যন্ত বিব্রতকর।’
পরে ওই বক্তব্যকে কেন্দ্র করে রোববার সকালে ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম আসাদুজ্জামান নূরের আদালতে সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টি বাদী হয়ে মামলা করেন। ওই মামলায় ব্যারিস্টার মইনুলের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত।
অপরদিকে মইনুলের এই বক্তব্যকে কেন্দ্র করে জামালপুর ও কুড়িগ্রামে তার বিরুদ্ধে আরও দুটি মানহানির মামলা করা হয়েছে। তবে ঢাকা ও জামালপুরের মামলা হাইকোর্ট থেকে আগাম জামিন পান ব্যারিস্টার মইনুল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *