সৌদির নতুন ব্যাখ্যা মেনে নেয়া কঠিন-অর্থহীন, জড়িতদের বিচার চায় জাতিসংঘ

নিউজ মিডিয়া ২৪: ডেস্ক: সৌদি আরবের পক্ষ থেকে সাংবাদিক জামাল খাসোগজির হত্যাকাণ্ডের কথা আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকার করে নেয়ার পর এ ব্যাপারে প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন জাতিসংঘ মহাসচিব অ্যান্তোনিও গুতেরেস, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। একইসঙ্গে এ ব্যাপারে হোয়াইট হাউজ’সহ অন্যান্য মার্কিন কর্মকর্তারাও প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন। তাদের কেউ কেউ খাসোগজি হত্যায় সৌদি আরবের এ ব্যাখ্যাকে মেনে নেওয়া কঠিন বলেও মন্তব্য করেছেন।
অ্যান্তোনিও গুতেরেস তাৎক্ষণিক এক বিবৃতিতে খাসোগজির হত্যাকাণ্ডে গভীর দুঃখ প্রকাশ করে এ ব্যাপারে নিরপেক্ষ ও স্বচ্ছ তদন্তের দাবি জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, সবরকম প্রভাবের ঊর্ধ্বে থেকে এই হত্যাকাণ্ডের তদন্ত করতে হবে।
সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন শুক্রবার রাতে প্রথমবারের মতো আনুষ্ঠানিকভাবে স্বীকার করেছে, খাসোগজি ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে নিহত হয়েছেন।
এ সম্পর্কে মার্কিন সিনেটর লিন্ডসে গ্রাহাম এক টুইটার বার্তায় লিখেছেন, ‘প্রথমে বলা হলো খাসোগজি কনস্যুলেট ত্যাগ করেছেন এবং তার নিখোঁজ হওয়ার ঘটনায় সৌদি আরবের কোনো হাত নেই। এখন বলা হচ্ছে, সৌদি যুবরাজের অজ্ঞাতসারে কনস্যুলেটের ভেতরেই খাসোগজিকে হত্যা করা হয়েছে। নতুন এই ব্যাখ্যা মেনে নেয়া কঠিন।’
মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদে ক্যালিফোর্নিয়া থেকে নির্বাচিত প্রতিনিধি টেড লিউ সৌদি আরবের সর্বশেষ ঘোষণাকে ‘অর্থহীন’ আখ্যায়িত করেছেন। তিনি তুর্কি ও মার্কিন গোয়েন্দা সূত্রের উদ্ধৃতি দিয়ে বলেন, ‘সংঘর্ষে’ নিহত ব্যক্তির দেহ করাত দিয়ে কেটে টুকরা টুকরা করার প্রয়োজন ছিল না।
তবে হোয়াইট হাউজ সৌদি আরবের স্বীকারোক্তির ব্যাপারে ভিন্নরকম প্রতিক্রিয়া জানিয়েছে। হোয়াইট হাউজের মুখপাত্র সারাহ স্যান্ডার্স বলেছেন, জামাল খাশোগির গুম হওয়ার ব্যাপারে সর্বশেষ তদন্তের যে ফলাফল সৌদি আরব প্রকাশ করেছে এবং এ ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে যে ব্যবস্থা নিয়েছে তাতে সন্তোষ প্রকাশ করছে হোয়াইট হাউজ।
স্যান্ডার্স আরো বলেন, খাসোগজির হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় ওয়াশিংটন গভীর দুঃখ প্রকাশ করছে এবং তার পরিবার, বাগদত্তা ও বন্ধুদের প্রতি সমবেদনা জানাচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *