আরও এক বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু

নিউজ মিডিয়া ২৪:ডেস্ক : পবিত্র হজ পালন করতে গিয়ে মো. আবুল কালাম আজাদ (৬০) নামে আরও এক বাংলাদেশি হজযাত্রীর মৃত্যু হয়েছে (ইন্নাল্লিাহি ওয়াইন্না ইলাহি রাজিউন)।
জামালপুর সদর থানার শাহবাজপুর গ্রামের বাসিন্দা আবুল কালাম আজাদ গত ১৮ জুলাই সৌদি আরবে যান। মক্কাতে অবস্থানকালে 18 জুলাই তিনি মারা যান।
তার পাসপোর্ট নম্বর বিটি-০২৯৯৪৬৬। তিনি নিবিড় ইন্টারন্যাশনাল ট্যুরস অ্যান্ড ট্রাভেলস এজেন্সির মাধ্যমে পবিত্র হজ পালন করতে গিয়েছিলেন।

মাঠ প্রশাসনে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার সংস্কৃতি চালু করতে হবে: রাষ্ট্রপতি

নিউজ মিডিয়া ২৪: ঢাকা: মাঠ প্রশাসনে স্বচ্ছতা ও জবাবদিহির সংস্কৃতি চালু করতে বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ। বুধবার সন্ধ্যায় বঙ্গভবনে দেশের সকল বিভাগ ও জেলার প্রশাসনিক প্রধানদের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন, ‘ব্যক্তিগত চাওয়া-পাওয়া বাদ দিয়ে জনগণের কল্যাণকে অগ্রাধিকার দিন।’
রাষ্ট্রপতি তাদের সত্যিকারের ‘জনসেবক’ হিসেবে দেশ ও জনগণের সেবা করার নির্দেশ দিয়ে বলেন, ‘জনগণ যাতে সরকারি সেবা নিতে গিয়ে কোন ধরনের হয়রানির শিকার না হয় তাও নিশ্চিত করতে হবে।’
দুর্নীতি সমাজ ও আর্থ-সামাজিক উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করে উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি ডিসিদের দুর্নীতির বিরুদ্ধে তৃণমূল পর্যায়ে জনগণকে সচেতন করে তোলার আহ্বান জানান।
রাষ্ট্রপতি ডিসিদের তাদের কোন কর্মকান্ডে সরকার বা স্থানীয় প্রশাসন যাতে বিব্রতকর পরিস্থিতিতে না পড়ে সেদিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখার পরামর্শ দেন।
উন্নয়ন ও প্রশাসনিক বিষয়ে নীতি-নির্ধারকদের সঙ্গে মতবিনিময় এবং পরবর্তী এক বছরের জন্য কাজে অগ্রাধিকার ও দিক-নির্দেশনা প্রণয়নের লক্ষ্যে বিভাগীয় কমিশনার ও জেলা প্রশাসকদের এ বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হচ্ছে।
রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বাংলাদেশকে ধর্ম নিরপেক্ষতা ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতির এক উজ্জ্বল দৃষ্টান্ত উল্লেখ করে মাঠ পর্যায়ে প্রশাসকদের জঙ্গি তৎপরতা ও সন্ত্রাসী কার্যক্রমের বিরুদ্ধে ব্যাপক প্রচারণার মাধ্যমে গণসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে অগ্রণী ভূমিকা পালন করার নির্দেশ দেন।
কৃষি, শিক্ষা, যোগাযোগ ও অবকাঠামো খাতে সরকারের বিভিন্ন মেগা উন্নয়ন প্রকল্পের কথা উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি বলেন, ‘জনগণের প্রতিটি টাকার যাতে সর্বোচ্চ ব্যবহার নিশ্চিত হয় সে ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে।’
রাষ্ট্রপতি গ্রাম পর্যায়ে জনকল্যাণমুখী ও টেকসই ভূমি ব্যবস্থাপনা গড়ে তোলার ওপর জোর দিয়ে ভূমি রেকর্ড ও জরিপ ব্যবস্থাপনাকে ডিজিটাইজড করতে জেলা প্রশাসকদের অগ্রণী ভূমিকা রাখতে হবে বলে উল্লেখ করেন।
তিনি মাঠ পর্যায়ের বিভিন্ন সরকারি কর্মকান্ডের প্রধান সমন্বয়কারী হিসেবে ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত একটি প্রগতিশীল, গণতান্ত্রিক, আধুনিক ও অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ে তোলার মাধ্যমে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের ‘সোনার বাংলা’ বিনির্মাণে জেলা প্রশসাকদের মেধা ও দক্ষতা কাজে লাগানোর আহ্বান জানান।

এখন থেকে পশ্চিমবঙ্গের নাম ‘বাংলা’

নিউজ মিডিয়া ২৪: ডেস্ক: ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের নাম পরিবর্তন করে ‘বাংলা’ রাখার বিল সর্বসম্মতিক্রমে পাস হয়ে গেছে রাজ্যের বিধানসভায়। এরপর এটি পাঠানো হবে কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে। সেখানে পাস হয়ে গেলেই পশ্চিমবঙ্গ পরিচিত হবে ‘বাংলা’ নামে।
বৃহস্পতিবার রাজ্যের বিধানসভায় এ বিল পাস হয়েছে বলে জানিয়েছে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম। ভারতের যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোতে কোনো রাজ্যের নাম বদলাতে হলে তাতে কেন্দ্রীয় সংসদ বা লোকসভার অনুমোদন প্রয়োজন। এখন লোকসভার দিকেই তাকিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের সরকার।
এর আগেও রাজ্যটির নাম পরিবর্তনের উদ্যোগ কয়েকবার দেখা যায়। কিন্তু কখনোই তা শেষ পর্যন্ত বাস্তবায়ন হয়নি। অনেক ঐতিহাসিকের অভিমত ছিল, পশ্চিমবঙ্গ নামের মধ্যে ‘পশ্চিম’ শব্দটি দেশভাগের ইতিহাসের দুঃসহ স্মৃতি বহন করে বিধায় সেটা মুছে ফেলার মানে হয় না।
কিন্তু রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা ভাষার ওপর রাজ্যের নাম রাখায় যেমন আগ্রহী, তেমনি রাজ্যের ইংরেজি নাম ‘ওয়েস্ট বেঙ্গল’ নিয়ে বেশ বিরক্তি প্রকাশ করেছেন বিভিন্ন সময়ে।
তার কর্মকর্তাদের ভাষ্যে, ইংরেজিতে ওয়েস্ট বেঙ্গল হওয়ার কারণে দিল্লিতে যখন সব রাজ্যকে নিয়ে কোনো সম্মেলন হয়, তখন ইংরেজি বর্ণানুক্রমে রাজ্যগুলিকে ডাকা হয় বলে ডব্লিউ দিয়ে শুরু ওয়েস্ট বেঙ্গলের নাম আসে সবার শেষে। সেজন্য পশ্চিমবঙ্গকে কেন্দ্রে অনেক অসুবিধায় পড়তে হয় বলে মনে করে মমতার সরকার। বাংলা রাখা হলে বি দিয়ে শুরু হলে তখন বেশ আগেই ডাক পড়তে পারে মমতার সরকারের।

হলি আর্টসান মামলা: বিচারের জন্য মহানগর আদালতে বদলি

নিউজ মিডিয়া ২৪: ঢাকা: রাজধানী গুলশানের হলি আর্টসানে জঙ্গি হামলার ঘটনার দায়ের করা মামলাটি বিচারের জন্য ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে বদলির আদেশ দিয়েছেন আদালত।
বৃহস্পতিবার ঢাকা মুখ্য মহানগর হাকিম (সিএমএম) সাইফুজ্জামার হিরো এই আদেশ দেন।
গুলশান থানার আদালতের নিবন্ধন কর্মকর্তা রাকিবুল ইসলাম গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, মামলাটি বিচারের জন্য ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে বদলির আদেশ দিয়েছেন সিএমএম আদালত। মামলাটি এখন সিএমএম আদালত থেকে ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালতে পাঠানো হবে। সেখানে মামলাটির বিচার কার্যক্রম হবে।
এর আগে ২৩ জুলাই ৮ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের পরিদর্শক হুমায়ুন কবীর। এর মধ্যে ৬ জন কারাগারে ও দুই জন পলাতক রয়েছে।
কারাগারে থাকা ছয় আসামি হলেন- জাহাঙ্গীর আলম ওরফে রাজীব গান্ধী, রাকিবুল হাসান রিগান, রাশেদুল ইসলাম ওরফে র্যাশ, সোহেল মাহফুজ, মিজানুর রহমান ওরফে বড় মিজান এবং হাদিসুর রহমান সাগর।
পলাতক দুই আসামি হলেন- শহীদুল ইসলাম খালেদ ও মামুনুর রশিদ রিপন। তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্রে গ্রেফতারি পরোয়ানা চাওয়া হয়েছে।
এ ছাড়াও বিভিন্ন অভিযানে ১৩ জন নিহত হওয়ায় তাদের অব্যাহতি দানারে সুপারিশ করেছেন তদন্তকারী কর্মকর্তা। যার মধ্যে ৮ জন বিভিন্ন অভিযানে ও ৫ জন হলি আর্টিসানেই নিহত হয়েছেন।
গুলশানে হলি আর্টিসানে সেনাবাহিনীর ‘অপারেশন থান্ডারবোল্টে’ নিহত পাঁচজন হলেন- রোহান ইবনে ইমতিয়াজ, মীর সামেহ মোবাশ্বের, নিবরাস ইসলাম, শফিকুল ইসলাম ওরফে উজ্জ্বল ও খায়রুল ইসলাম ওরফে পায়েল।
বিভিন্ন ‘জঙ্গি আস্তানায়’ অভিযানে নিহত আটজন হলেন- তামীম আহমেদ চৌধুরী, নুরুল ইসলাম মারজান, তানভীর কাদেরী, মেজর (অব.) জাহিদুল ইসলাম ওরফে মুরাদ, রায়হান কবির তারেক, সারোয়ান জাহান মানিক, বাশারুজ্জামান ওরফে চকলেট ও মিজানুর রহমান ওরফে ছোট মিজান।

সালাহ নৈপুণ্যে জয় পেল লিভারপুল

নিউজ মিডিয়া ২৪: ডেস্ক: মিশরীয় তারকা মোহাম্মদ সালাহ ও সেনেগালের সাদিও মানের নৈপুণ্যে ম্যানসিটির বিপক্ষে ২-১ ব্যবধানে জয় পেয়েছে লিভারপুল।
যুক্তরাষ্ট্রের মেটলাইফ স্টেডিয়ামে মুখোমুখি হয় ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের শীর্ষ দুই দল ম্যানসিটি ও লিভারপুল। তবে ম্যাচে দাপট দেখিয়ে জয় তুলে নেয় ইয়র্গেন ক্লপের শিষ্যরা।
এদিন ম্যাচের প্রথমার্ধ অবশ্য কোনো দলই গোলের দেখা পায়নি। তবে দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই রাশিয়া বিশ্বকাপে সুযোগ না পাওয়া জার্মান তরুণ সেনের ৫৭ মিনিটে গোলে লিড নেয় পেপ গার্দিওলার শিষ্যরা।
৬২ মিনিটে বদলি ফুটবলার হিসেবে বেঞ্চ থেকে মাঠে নামেন মিশরীয় স্ট্রাইকার সালাহ। এর এক মিনিট পরেই তার গোলে সময়তায় ফেরে অল রেডসরা। আর নির্ধারিত ৯০ মিনিটের পর যোগ করা ৪ মিনিটের শেষ মিনিটে পেনাল্টি থেকে গোল করে লিভাপরপুলের জয় উদযাপনে সাহায্য করেন সেনেগাল তারকা মানে।

জাফর ইকবালের ওপর হামলা: ৬ আসামির বিরুদ্ধে চার্জশিট

নিউজ মিডিয়া ২৪: ঢাকা: শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তমঞ্চে জনপ্রিয় লেখক ও শিক্ষবিদ অধ্যাপক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের ওপর হামলার ঘটনায় ৬ জনকে অভিযুক্ত করে বৃহস্পতিবার আদালতে চার্জশিট দাখিল করেছে পুলিশ।
অভিযুক্ত ৬ জন হলেন- ছুরি নিয়ে হামলাকারী প্রধান আসামি ফয়জুল হাসান ফয়েজ, তার বাবা হাফেজ মাওলানা আতিকুর রহমান ও মা মোছাম্মৎ মিনারা বেগম, মামা মো. ফজলুর রহমান, ফয়েজের ভাই এনামুল হাসান এবং ফয়েজের বন্ধু মো. সোহাগ মিয়া। এরা সবাই আটক আছেন।
এদিকে বুধবার বিকালে এক সংবাদ সম্মেলনে সিলেট মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত কমিশনার পরিতোষ ঘোষ বলেছেন, মামলার প্রধান আসামি ফয়জুল হাসান নিজেই জাফর ইকবালকে হত্যার পরিকল্পনা করে। ৩-৪ মাস থেকেই সে জাফর ইকবালকে হত্যার সুযোগ খুঁজতে থাকে। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার কথা আদালতে স্বীকার করেছে ফয়জুল।
উল্লেখ্য, গত ২ মার্চ শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তমঞ্চে ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের উদ্যোগে আয়োজিত ‘ইইই ফেস্টিভ্যালে’ জাফর ইকবাল বক্তব্য দেয়ার সময় তার মাথার পেছনে, হাতে এবং শরীরের বিভিন্ন স্থানে ছুরি দিয়ে আঘাত করে ফয়জুল হাসান ফয়েজ।
এ ঘটনায় বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার মুহাম্মদ ইশফাকুল হোসেন বাদী হয়ে সিলেট মহানগর পুলিশের জালালাবাদ থানায় একটি হত্যাচেষ্টা মামলা করেন।

যেখানে মার খাবেন ইমরান

নিউজ মিডিয়া ২৪: ডেস্ক: সন্ত্রাসবিরোধী যুদ্ধে অন্যতম মিত্র যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে উত্তেজনার সম্পর্ক বিরাজমান। সন্ত্রাসবাদের আশ্রয়-প্রশ্রয় প্রশ্নে আফগানিস্তানের সঙ্গে দ্বন্দ্ব। কাশ্মীর সংকট নিয়ে ভারতের সঙ্গে অচলাবস্থা। পাক পররাষ্ট্র নীতির ক্ষেত্রে এ মুহূর্তে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ এগুলোই। মার্কিন খোঁচা আর ভারতীয় চোখরাঙানির মধ্যে ভারসাম্য রক্ষা করতে চীনের সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধার বেশ একটা চেষ্টা পাক নেতাদের মধ্যে লক্ষ্যণীয়। তবে তার জন্যও মূল্য দিতে হচ্ছে ইসলামাবাদকে। ঋণের পাহাড় জমে যাচ্ছে। বেইজিংয়ের দেয়া ঋণ গিলে ফেলতে চাচ্ছে দেশটির ৩০০ বিলিয়নের অর্থনীতি।
একটি শক্তিশালী রাষ্ট্রের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ দিক এর শক্তিশালী পররাষ্ট্র নীতি। পাকিস্তানে এবারের নির্বাচনী প্রচারণায় সেই পররাষ্ট্র নীতি সবচেয়ে কম গুরুত্ব পেয়েছে। নির্বাচনে ক্ষমতাসীন দল নওয়াজ শরিফের পাকিস্তান মুসলিম লীগের বিরুদ্ধে বড় ধরনের চ্যালেঞ্জ হিসেবে আবির্ভূত হন ক্রিকেটার থেকে রাজনীতিক ইমরান খান। এমনকি প্রথমবারের জন্য পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হওয়া থেকে আর মাত্র কয়েক কদম দূরে রয়েছেন তিনি। তবে অন্যান্য দলের নেতাদের মতোই আন্তর্জাতিক সম্পর্কের চেয়ে প্রধান বিরোধী নেতাদের দুর্নীতি নিয়েই বেশি সরব ছিলেন তিনি। পররাষ্ট্র নীতি নিয়ে যখনই তিনি কথা বলেছেন, তার মধ্যে আক্রমণাত্মক ভঙ্গি দেখা গেছে। বেশিরভাগ সময় তার নিজের এবং পাকিস্তানি গণতন্ত্রের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র হচ্ছে বলে ‘আন্তর্জাতিক ব্যবস্থার’ ওপর দোষারোপ করেছেন তিনি। পাকিস্তানের ভঙ্গুর বিদেশ নীতি এ মুহূর্তে খাদের কিনারে দাঁড়িয়ে রয়েছে। প্রধানমন্ত্রী হিসেবে দেশের এ ভঙ্গুর বিদেশ নীতি তার জন্য বড় চ্যালেঞ্জ হিসেবে হাজির হবে।
নাইন ইলেভেনের পরেই দৃশ্যপটে আসে পাক-মার্কিন সন্ত্রাসবিরোধী জোট। এরপর প্রায় দুই দশক ধরে দেশ দুটির মধ্যে সর্বদায় দোদুল্যমান সেই সম্পর্ক বর্তমানে ভেঙে পড়ার পর্যায়ে এসে পৌঁছেছে।

৫৭ ধারা এখন ডেড, এ ধারায় আর মামলা হবে না: মোস্তাফা জব্বার

নিউজ মিডিয়া ২৪: ঢাকা: টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, ৫৭ ধারা বলে আর কিছু থাকবে না। এটি ডেড হয়ে যাবে। সংসদীয় কমিটিতে নতুন ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্ট প্রায় চূড়ান্ত করা হয়েছে, যা সংসদের আগামী অধিবেশনে পাস হবে।
তিনি আরও বলেন, ৫৭ ধারায় যেসব মামলা হয়েছে, তার বেশিরভাগই আইনের অপপ্রয়োগ। নতুন ডিজিটাল সিকিউরিটি অ্যাক্টে সে সুযোগ থাকবে না। কারণ আইনে একটি কমিশন গঠনের কথা বলা হয়েছে। ওই কমিশনের অনুমোদন ছাড়া এ আইনে কেউ মামলা করতে পারবেন না।
বৃহস্পতিবার জেলা প্রশাসক (ডিসি) সম্মেলনের তৃতীয় ও শেষ দিনের দ্বিতীয় অধিবেশনে মন্ত্রী এসব কথা বলেন। এতে সভাপতিত্ব করেন মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব শফিউল আলম।
মোস্তাফা জব্বার বলেন, আমরা ডিজিটাল ও সাইবার ক্রাইম বন্ধ করতে চাই। মতপ্রকাশের স্বাধীনতা হরণ করা আমাদের উদ্দেশ্য নয়। বর্তমানে ৫৭ ধারায় যে মামলাগুলো আছে, সেগুলো বিদ্যমান আইনি প্রক্রিয়ায় নিষ্পত্তি হবে। সাংবাদিকদের আরেক প্রশ্নের জবাবে মোস্তাফা জব্বার বলেন, সরকার ডিজিটাল বাংলাদেশ করতে চায়। সেটি শুধু ঢাকাকেন্দ্রিক নয়, রাজধানী থেকে শুরু করে ইউনিয়ন এবং গ্রামপর্যায় পর্যন্ত ডিজিটাল হবে। সে ক্ষেত্রে ডিসিদের সহযোগিতা প্রয়োজন।

বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক পরিবেশ দেখতে চায় ভারত: সংবাদ সম্মেলনে জাপা

নিউজ মিডিয়া ২৪: ঢাকা: জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হোসেইন মোহাম্মদ এরশাদের ডাকা সংবাদ সম্মেলনে তিনি নিজেই ছিলেন অনুপস্থিত। তার স্থলে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন জাপা মহাসচিব এবিএম রুহুল আমিন হাওলাদার।
দলের বনানী কার্যালয়ে বেলা ১১টার পর সাংবাদ সম্মেলন শুরু হয়। সম্মেলনে হাজির হয়ে রুহুল আমিন প্রথমেই সাংবাদিকদের কোনো প্রশ্ন নেয়া হবে না বলে জানান। এরশাদের ভারত সফর নিয়ে এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।
লিখিত বক্তব্যে রুহুল আমিন হাওলাদার বলেন, বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক পরিবেশ যেন বজায় থাকে সেটা ভারত চায়। পাশাপাশি বাংলাদেশে সকল রাজনৈতিক দলের অংশগ্রহণে একটি সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন প্রত্যাশা করে।
তিনি বলেন, ভারতীয় নেতৃবৃন্দ আশ্বাস দিয়েছেন বাংলাদেশে গণতান্ত্রিক ও সাংবিধানিক ধারা অব্যাহত বজায় রাখতে তাদের নৈতিক সমর্থন সব সময় থাকবে।
রুহুল আমিন বলেন, জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মোহাম্মদ এরশাদের নেতৃত্বে আমরা পাঁচ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল ভারতের রাজধানী নয়া দিল্লি সফর করেছি। আপনারা জানেন আমাদের এ ভারত সফর নিয়ে দেশে ব্যাপক আলোচনা হয়েছে। অনেক জল্পনা ও কল্পনারও সৃষ্টি হয়েছে। প্রশ্ন এসেছে কেন আমরা হঠাৎ করে এ সফরে গেলাম। আমরা এসফর নিয়ে দেশেবাসী ও মিডিয়াকে ধু¤্রজালের মধ্যে রাখতে চাই না। এজন্যই আজকের এ সংবাদ সম্মেলন।
তিনি বলেন, সফরে ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, পররাষ্ট্র মন্ত্রী ও নিরাপত্তা উপদেষ্টার সাথে বৈঠন নির্ধারণ ছিল। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নয়া দিল্লিতে উপস্থিত না থাকায় তার সাথে বৈঠক হয় নাই। ২২ জুলাই বিকেল ৪টায় ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং’র সাথে তার বাসভবনে বৈঠকে মিলিত হয়েছি। সেখানে আমরা পারস্পারিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়ে কথা বলেছি। ২৩ জুলাই দুপুর দেড়টায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজের সাথে ঘণ্টাব্যাপী বৈঠক হয়েছে। সন্ধ্য ৬টায় প্রতিরক্ষা উপদেষ্টা অজিত দোলাভালের সাথে তার বাসভবনে আমাদের বৈঠক হয়েছে। তিনটি বৈঠকই অত্যন্ত আন্তরিক ও সৌহার্দ্য পরিবেশে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এই তিন শীর্ষ নেতার সাথে প্রায় অভিন্ন বিষয় নিয়েই আলোচনা হযেছে।
তিনি বলেন, ভারতীয় নেতৃবৃন্দ জানিয়েছেন, তাদের সরকার ও জনগণ বাংলাদেশের সাথে বিরাজমান সুসম্পর্ক আরো সৃদৃঢ় দেখতে চায়। তারা একান্ত ভাবে প্রত্যাাশা করেছেন বাংলাদেশের গণাতান্ত্রিক পরিবেশ যেন বজাায় থাকে। তারা আরো বলেছেন, ভারত সবসময়ই বাংলাদেশে সকল রাজনৈতিক দলের অংশগ্রহণে একটি সুষ্টু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন প্রত্যাশা করে।
সংবাদ সম্মেলনের শেষ দিকে রুহুল আমিন হাওলাদার বলেন, আমরা সংবাদ সম্মেলন থেকে আপনাদের একটি বিষয় জানাতে চাই, বরিশাল সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থীর পক্ষে জাতীয় পার্টির প্রার্থীকে নির্বচন থেকে সরে দাঁড়াতে নির্দেশ দিয়েছি। একই সঙ্গে আমাদের সকল নেতাকর্মী ও সমর্থকদের আওয়ামী লীগ প্রার্থী সাদেক আবদুল্লাহর পক্ষে কাজ করার নির্দেশ দিয়েছি।

রাজধানীতে যুবদলের বিক্ষোভ মিছিল

নিউজ মিডিয়া ২৪: ঢাকা: বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তি ও সুচিকিৎসা এবং ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের বিরুদ্ধে সকল মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে রাজধানীতে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে যুবদল উত্তর।
আজ বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টায় পান্থপথ বসুন্ধরা মার্কেটের সামনে যুবদল উত্তরের সভাপতি এসএম জাহাঙ্গীর ও সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম মিল্টনের নেতৃত্বে তারা এ বিক্ষোভ মিছিল করে। এসময় যুবদলের নেতাকর্মীরা খালেদা জিয়ার ভয় নাই রাজপথ ছাড়ি নাই। মুক্তি মুক্তি মুক্তি চাই খালেদা জিয়ার মুক্তি চাই বলে স্লোগান দিতে থাকে। বিক্ষোভ মিছিলে ঢাকা মহানগর উত্তরের বিভিন্ন থানা ও ওয়ার্ডের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। বিক্ষোভ মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য ঢাকা মহানগর যুবদল উত্তরের সভাপতি এসএম জাহাঙ্গীর বলেন, রাজনৈতিক প্রতিহিংসায় বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়াকে সরকার মিথ্যা মামলায় বন্দি করে রেখেছে।নিউজ মিডিয়া ২৪: