ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন গ্রেফতার

নিউজ মিডিয়া ২৪: ঢাকা : মানহানির মামলায় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেন গ্রেফতার হয়েছেন।
জানা গেছে, ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে ঢাকার উত্তরা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সোমবার রাত ৯টা ৪৬ মিনিটে উত্তরায় জেএসডি সভাপতি আ স ম আবদুর রবের বাসা থেকে বের হলে তাকে গ্রেফতার করা হয়।
ডিবির যুগ্ম কমিশনার মাহাবুব আলম গণমাধ্যমকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডিবি কার্যালয়ে নেয়া হয়েছে।
ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় গ্রেফতারি পরোয়ানা
টেলিভিশনের টকশো’তে সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টির বিরুদ্ধে মানহানিকর বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের বিরুদ্ধে হ্মণবাড়িয়ায় দায়ের হওয়া এক মামলায় গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে। সোমবার বিকেলে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জ্যেষ্ঠ বিচারিক হাকিম দ্বিতীয় আদালতের বিচারক ফারজানা আহমেদ এ পরোয়ানা জারি করেন। এর আগে দুপুরে ইংরেজি দৈনিক অবজারভারের ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি আয়েশা আহমেদ লিজা বাদী হয়ে মইনুলের বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করেন।
এ বিষয়ে বাদী পক্ষের আইনজীবী সারোয়ার-ই-আলম জানান, ৫০০/৫০১ ধারায় বাদী লিজা মামলাটি দায়ের করেন। পরে আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে বিকেলে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন।
ভোলায় মামলা
টেলিভিশনের টকশো’তে সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টির বিরুদ্ধে মানহানিকর বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের বিরুদ্ধে এবার ভোলায় মানহানির মামলা করা হয়েছে। সোমবার দুপুরে ভোলা জেলা যুব মহিলা লীগের আহ্বায়ক খাদিজা আক্তার স্বপ্না বাদী হয়ে চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলাটি দায়ের করেন।
আদালতের বিচারক শরীফ মোহাম্মদ ছানাউল হক মামলাটি গ্রহণ করে অতিরিক্ত চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে জুডিসিয়ালি তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন। আগামী ২৫ অক্টোবর তদন্ত রিপোর্ট জমা দিতে বলা হয়েছে।
রংপুর ও কুমিল্লায় মামলা
নারী বিদ্বেষী বক্তব্য দেওয়ার অভিযোগে সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনের বিরুদ্ধে এবার রংপুর ও কুমিল্লায় মামলা হয়েছে।
রংপুর: সোমবার বিকেলে রংপুরের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্টেট আদালতে এই মামলা করেন নগরীর মুলাটোল এলাকার মিলি মায়া বেগম নামে এক নারী। আদালত সূত্রে জানা গেছে, নারী বিদ্বেষী বক্তব্য দিয়ে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগে ৫০০/৫০৬ ও ৫০৯ ধারায় মামলাটি করা হয়। বাদির পক্ষে আইনজীবী আইনুল হোসেন আদালতে মামলাটি দাখিল করেন।
জেলা জজ আদালতের পিপি আব্দুল মালেক বলেন, আদালতের বিচারক আরিফা ইয়াসমিন মুক্তা মামলাটি আমলে নিয়েছেন। আমরা মামলার আসামির বিরুদ্ধে ওয়ারেন্ট চেয়েছি। এ বিষয়ে আদালত এখনো সিদ্ধান্ত জানায়নি।
কুমিল্লা: ব্যারিস্টার মঈনুল হোসেনের বিরুদ্ধে কুমিল্লা আদালতে মানহানির মামলাটি দায়ের করেন সুবীর নন্দী নামে একজন আইনজীবী।
গত রোববার দুপুরে কুমিল্লার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ১নং আমলি আদালতে মামলাটি দায়ের করা হয়। সোমবার মামলাটির শুনানি শেষে সিআর হিসেবে গণ্য করে অধিকতর শুনানির জন্য আগামী ২৩ ডিসেম্বর দিন ধার্য করেন চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট মো. সোহেল রানা ।
আইনজীবি সুবীর নন্দী জানান, মাসুদা ভাট্টিকে চরিত্রহীন বলায় একজন সাংবাদিক হিসেবে তার মানহানি হয়েছে বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে। এতে সাক্ষী করা হয়েছে মাসুদা ভাট্টিসহ ৫ জনকে।
গত ১৬ অক্টোবর একাত্তর টেলিভিশনের টক শো ‘একাত্তরের জার্নাল’ এ ব্যারিস্টার মইনুল হোসেনকে সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টি প্রশ্ন করেন, ‘জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে আপনি যে হিসেবে উপস্থিত থাকেন- আপনি বলেছেন আপনি নাগরিক হিসেবে উপস্থিত থাকেন। কিন্তু সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকেই বলছেন, আপনি জামায়াতের প্রতিনিধি হয়ে সেখানে উপস্থিত থাকেন।’
মাসুদা ভাট্টির এই প্রশ্নে রেগে গিয়ে মইনুল হোসেন বলেন, ‘আপনার দুঃসাহসের জন্য আপনাকে ধন্যবাদ দিচ্ছি। আপনি চরিত্রহীন বলে আমি মনে করতে চাই। আমার সঙ্গে জামায়াতের কানেকশনের কোনো প্রশ্নই নেই। আপনি যে প্রশ্ন করেছেন তা আমার জন্য অত্যন্ত বিব্রতকর।’
পরে ওই বক্তব্যকে কেন্দ্র করে রোববার সকালে ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম আসাদুজ্জামান নূরের আদালতে সাংবাদিক মাসুদা ভাট্টি বাদী হয়ে মামলা করেন। ওই মামলায় ব্যারিস্টার মইনুলের বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত।
অপরদিকে মইনুলের এই বক্তব্যকে কেন্দ্র করে জামালপুর ও কুড়িগ্রামে তার বিরুদ্ধে আরও দুটি মানহানির মামলা করা হয়েছে। তবে ঢাকা ও জামালপুরের মামলা হাইকোর্ট থেকে আগাম জামিন পান ব্যারিস্টার মইনুল।

এসআই নিয়োগ পরীক্ষার চূড়ান্ত ফলাফল প্রকাশ

নিউজ মিডিয়া ২৪: ডেস্ক : বাংলাদেশ পুলিশের ২০১৮ সালের বহিরাগত ক্যাডেট এসআই (নিরস্ত্র) পদে নিয়োগের লক্ষ্যে অনুষ্ঠিত লিখিত, অ্যাপটিটিউট ও মৌখিক পরীক্ষার চূড়ান্ত ফল প্রকাশিত হয়েছে।
২২ অক্টোবর বিকেলে পুলিশ হেড কোয়ার্টারসের এআইজি (রিক্রুটমেন্ট অ্যান্ড ক্যারিয়ার প্ল্যানিং-১) তামান্না ইয়াসমীন স্বাক্ষরিত ফল প্রকাশ করা হয়। এতে চূড়ান্তভাবে ২ হাজার প্রার্থীকে সিলেকশন বোর্ড সাময়িকভাবে সুপারিশ করা হয়েছে।
উত্তীর্ণদের জন্য পুলিশ হেড কোয়ার্টার্সের দেয়া শর্ত হচ্ছে :
১। প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত প্রার্থীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও পুলিশ ভেরিফিকেশন সম্পন্ন করার পর ১ (এক) বছর মেয়াদি মৌলিক প্রশিক্ষণ গ্রহণ করতে হবে। উল্লেখ্য, স্বাস্থ্য পরীক্ষায় যোগ্য ও সন্তোষজনক পুলিশ ভেরিফিকেশন প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত প্রার্থীদের বহিরাগত ক্যাডেট এসআই (নিরস্ত্র) হিসেবে মৌলিক প্রশিক্ষণ গ্রহণের জন্য বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমি, সারদায় প্রেরণ করা হবে।
২। বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমি, সারদায় ১ (এক) বছর মেয়াদি মৌলিক প্রশিক্ষণ সফলভাবে সম্পন্নকৃত প্রার্থীদের শিক্ষানবিশ এসআই (নিরস্ত্র) হিসেবে নিয়োগ প্রদান করা হবে।
উল্লেখ্য, শিক্ষানবিশ এসআই (নিরস্ত্র) হিসেবে যোগদানের তারিখ হতে ২ (দুই) বছর চাকরিকাল সফলভাবে সম্পন্নের পর বিধি মোতাবেক তাকে স্থায়ী করা হবে।
৩। বহিরাগত ক্যাডেট এসআই (নিরস্ত্র) পদে প্রাথমিকভাবে নির্বাচিত প্রার্থীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও পুলিশ ভেরিফিকেশন ফরম পূরণের কার্যক্রম সংশ্লিষ্ট রেঞ্জ ডিআইজির মাধ্যমে সম্পন্ন করা হবে। এছাড়া রেঞ্জ ডিআইজি নির্বাচিত প্রার্থীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা ও পুলিশ ভেরিফিকেশন ফরম পূরণের কার্যক্রম গ্রহণের জন্য স্থান নির্ধারণ করবেন এবং প্রার্থীদের যথাসময়ে অবহিত করবেন।
উত্তীর্ণদের তালিকা দেখতে ক্লিক করুন

যাত্রাবাড়ীতে দুই বাসের চাপায় যুবক নিহত

নিউজ মিডিয়া ২৪: ঢাকা : রাজধানীর যাত্রাবাড়ীতে দুই বাসের চাপায় সেলিম মিয়া (২২) নামে এ যুবক নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন জুয়েল (৩০) নামে আরেক যুবক।
সোমবার দুপুর ১টার দিকে যাত্রাবাড়ী মোড়ে রাস্তা পারাপারের সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে।
নিহত সেলিম মাদারীপুর শিবচর উপজেলা আলেপুর গ্রামের ফজল হকের একমাত্র সন্তান। তিনি ডেমরা এলাকায় থাকতেন।
নিহত সেলিমের মা মনোয়ারা বেগম বলেন, চিকিৎসার জন্য আজকে গ্রামের বাড়ি আলেপুর থেকে ঢাকায় ছেলে সেলিমের বাসায় আসেন। পরে যাত্রাবাড়ী মোড়ে রাস্তা পারাপারের সময় দুই বাসের চাপায় সেলিমসহ আরও এক যুবক আহত হয়। তাৎক্ষণিক তাদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক দুপুর ২টার দিকে সেলিমকে মৃত্যু ঘোষণা করেন। হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, আহত জুয়েলের অবস্থাও আশঙ্কাজনক।
যাত্রাবাড়ীর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী ওয়াজেদ আলী জানান, দুর্ঘটনার পর ‘ট্রান্স সিলভা’ পরিবহনের দু’টি বাস জব্দ ও এক চালককে আটক করা হয়েছে।

মন্ত্রিপরিষদ ছোট না করার ইঙ্গিত: সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী

নিউজ মিডিয়া ২৪: ঢাকা : প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্যে মন্ত্রিপরিষদ ছোট না করার ইঙ্গিত পাওয়া গেছে। আজ তাঁর সরকারি বাসভবন গণভবনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে শেখ হাসিনা এমন ইঙ্গিত দেন। সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে শেখ হাসিনা বলেন, মন্ত্রিপরিষদ ছোট করা কী জরুরি? তিনি বলেন, প্রত্যেক মন্ত্রীর হাতে অনেক কাজ রয়েছে। অনেকগুলো প্রকল্প রয়েছে প্রতিটি মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রীর হাতে। মন্ত্রিপরিষদকে ছোট করা হলে এসব কাজ ব্যহত হয় কিনা তাও ভেবে দেখছি।
নির্বাচনকালীন সরকার নিয়ে এক প্রশ্নে প্রধানমন্ত্রী বলেন, মন্ত্রিপরিষদ ছোট হলে উন্নয়ন কাজ বাধাগ্রস্থ হতে পারে। বর্তমান মন্ত্রিপরিষদ থাকলে সমস্যা কোথায়?
সৌদি আরব সফর বিষয়ে বিস্তারিত জানাতে সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। আজ সোমবার প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় গণভবনে বিকাল ৪টায় এ সংবাদ সম্মেলন শুরু হয়। সংবাদ সম্মেলনে সৌদি সফর বিষয়ে লিখিত বক্তব্য তুলে ধরেন প্রধানমন্ত্রী ।

আমার বিরুদ্ধে ক্রমাগতভাবে বিদ্বেষপূর্ণ ভিত্তিহীন ব্যক্তিগত আক্রমণ করা হচ্ছে: ড. কামাল

নিউজ মিডিয়া ২৪: ঢাকা : গণফোরামের সভাপতি ও সংবিধান প্রণেতা ড. কামাল হোসেন বলেছেন, নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার বা কোনো রাষ্ট্রীয় পদ পাওয়ার কোনো ইচ্ছে আমার নেই। একটি গণতান্ত্রিক শাসনব্যবস্থার ভিত্তি হিসেবে একটি সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে আমাদের সম্মিলিত প্রচেষ্টাকে ভুল ব্যাখ্যা করা হচ্ছে।
আজ সোমবার বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এই কথা বলেন ড. কামাল হোসেন।
জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের নেতা ড. কামাল হোসেন বলেন, যাঁরা ক্রমাগতভাবে আমার বিরুদ্ধে বিদ্বেষপূর্ণ ভিত্তিহীন ব্যক্তিগত আক্রমণ করে চলেছেন তাঁদের আমি এই বিষয়টি স্পষ্ট করে দিতে চাই যে, নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার বা কোনো রাষ্ট্রীয় পদ পাওয়ার কোনো ইচ্ছে আমার নেই। একটি গণতান্ত্রিক ধর্মনিরপেক্ষ ও বহুমাত্রিক সমাজ প্রতিষ্ঠার জন্য আমি কাজ করে যাব।
এই প্রবীণ আইনজীবী বলেন, জনগণের এই উদ্বেগ ও আগ্রহের পরিপ্রেক্ষিতে আমরা বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও দেশের নাগরিক সমাজের কয়েকজন প্রতিনিধি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের পরিবেশ সৃষ্টির জন্য গণফোরাম ব্যাপক আলোচনার ভিত্তিতে সাতটি দাবির ব্যাপারে ঐকমত্য প্রতিষ্ঠা করতে পেরেছি।
সাতটি দাবি হলো- বর্তমান সংসদ ভেঙে দেওয়া, মন্ত্রিসভার পদত্যাগ, সব রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আলোচনার ভিত্তিতে একটি নিরপেক্ষ নির্দলীয় নির্বাহী বিভাগ বা সরকার গঠন, রাজনৈতিক বন্দিদের মুক্তি দেওয়া, বাকস্বাধীনতা ও রাজনীতির সভা-সমাবেশের অধিকার নিশ্চিত করা, জনগণের আস্থা আছে- এমন ব্যক্তিদের সমন্বয়ে নির্বাচন কমিশন পুনর্গঠন এবং নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার না করা।
ড. কামাল হোসেন বলেন, আমি উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ করছি যে, একটি গণতান্ত্রিক শাসনব্যবস্থার ভিত্তি হিসেবে একটি সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচন অনুষ্ঠানের লক্ষ্যে আমাদের সম্মিলিত প্রচেষ্টাকে ভুল ব্যাখ্যা করা হচ্ছে। আমাদের সাত দফা দাবি প্রতিষ্ঠিত করার লক্ষ্যে আমরা বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও দেশের নাগরিক সমাজের প্রতিনিধিগণ জাতীয় পর্যায়ে আলাপ-আলোচনার মাধ্যমে মতৈক্যে পৌঁছেছি, যার ফলে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নামে একটি উদ্যোগ প্রতিষ্ঠা লাভ করেছে।
ড. কামাল বলেন, বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও নাগরিক সমাজের ঐক্য বজায় রাখার লক্ষ্যে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট কাজ করে যাবে, যাতে রাষ্ট্র ও সমাজের সর্বত্র গণতান্ত্রিক চর্চার জন্য একটি কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করা যায়। সুষ্ঠু ও অবাধ নির্বাচনের লক্ষে আমাদের দাবিগুলো আদায়ের জন্য আমরা এমন ব্যক্তি ও দলের সাথে কাজ করব, যারা একটি গণতান্ত্রিক ও ধর্মনিরপেক্ষ রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠায় সংকল্পবদ্ধ এবং যারা এমন একটি সমাজ প্রতিষ্ঠা করতে চান যেখানে ধর্ম, জাতিগত পরিচয় ও লিঙ্গের ভিত্তিতে কারো বিরুদ্ধে বৈষম্য করা হবে না। আমরা বিভাগ ও জেলাপর্যায়ে সমাবেশ করব।
সংবিধান প্রণেতা বলেন, আমাদের এই ঐক্যের সাথে জামায়াতের কোনো সম্পৃক্ততা নাই। এটা আগেও পরিষ্কার করে বলা হয়েছে। এখনো বলছি, স্বাধীনতাবিরোধী কোনো শক্তির সঙ্গে আমাদের ঐক্য নয়। আর একটি বিষয় পরিষ্কার করে বলতে চাই- আমরা ঐক্য করেছি কয়েকটি রাজনৈতিক দল মিলে। কিন্তু কোনো ব্যক্তি বিশেষের সাথে আমাদের ঐক্যের কোনো সম্পর্ক নাই। বিশেষ করে তারেক রহমানের সাথে।
গণফোরামের সভাপতি বলেন, আমরা দল হিসেবে বিএনপির সাথে ঐক্য করেছি। কিন্তু ব্যক্তি তারেক রহমানের সাথে আমাদের কোনো সম্পর্ক নেই। আমরা কয়েকটি দল নিরপেক্ষ নির্বাচনের দাবিতে ঐক্য করেছি। আর সেই জন্য জনমত গঠনে কাজ করছি।
গতকাল জাতীয় সংসদে ড. কামাল হোসেনকে নিয়ে যেসব মন্তব্য করা হয়েছে সে বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এসব নিয়ে মন্তব্য করার প্রয়োজন মনে করছি না। যদি কখনো প্রয়োজন মনে করি তাহলে তখন মন্তব্য করব। আর সংসদে তারা অনেক কিছু নিয়ে আলোচনা করতেই পারে।
সংবিধানের বাইরে কোনো দাবি মানা হবে না আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের এমন বক্তব্যের বিষয়ে জানতে চাইলে ড. কামাল হোসেন বলেন, এই সংবিধান তো তারা সংশোধন করছে। আগের সংবিধানে আমাদের দাবিগুলো ছিল। আমরা আগের সংবিধানে যেগুলো ছিল সেগুলোই বলেছি।
দাবি মানা না হলে কর্মসূচি কেমন হবে জানতে চাইলে ড. কামাল বলেন, আমরা আপাতত সারা দেশে যে জনমত গঠন করব তার মাধ্যমে আশা করি দাবি আদায় হবে। তারপরও যদি দাবি আদায় না হয়, তাহলে গভীরভাবে ভেবে পরবর্তী সিদ্ধান্ত নেব।

দু’এক সপ্তাহে রাজনৈতিক পট পরিবর্তন, ইঙ্গিত দিলেন দুদু

ঢাকা: আগামী দু-এক সপ্তাহের মধ্যে দেশের সার্বিক রাজনৈতিক পরিস্থিতি সরকারের প্রতিকূলে চলে যাবে এবং কত ধানে কত চাল হয় তা সরকার বুঝবে বলে মনে করেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু।
সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর শিশু কল্যাণ মিলনায়তনে ইন্টারন্যাশনাল ডায়ালগ এইড ফাউন্ডেশন (ইডাফ) আয়োজিত ‘নির্বাচন ও মানবাধিকার’ শীর্ষক আলোচনা সভায় অংশ নিয়ে তিনি এ কথা বলেন।
তিনি বলেন, ‘আপনারা টের পাবেন আগামী দু-এক সপ্তাহের মধ্যে কোথাকার পানি কোথায় গড়ায়, কত ধানে কত চাল হয়। এখনও বুঝতে পারেন নাই। কারণ জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে যারা নেতৃত্ব দিচ্ছেন, সমাজ ও রাষ্ট্রের গণতান্ত্রিক নেতা হিসেবে তাদের অতীত পরিচয় রয়েছে।’
জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট যে কতটা কার্যকর, তা সরকারের বক্তব্য শুনলেই আপনারা বুঝতে পারবেন উল্লেখ করে বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেছেন, ‘তাদের (সরকার) মাথা শিগগির আরও খারাপ হবে।’
দেশে মানবাধিকার বলে কিছু নেই দাবি করে তিনি সরকারকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘যেখানে গণতন্ত্রের স্বাধীনতা থাকে না, বাক্স্বাধীনতা থাকে না, ব্যক্তি তার অধিকার হারায় সেখানে মানবাধিকার বলে তো কিছু থাকে না। বাংলাদেশে মানবাধিকার আজ ভুলুণ্ঠিত।’
তিনি বলেন, ‘জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট মানুষের মধ্যে আশাবাদ সৃষ্টি করায় এটিকে সমাবেশের অনুমতি দিতেও গড়িমসি করছে সরকার। আমাদের নেতাদেরকে ব্যপক হারে গ্রেফতার করা হচ্ছে।’
আয়োজক সংগঠনের সভাপতি মো. মোজাহারুল ইসলামের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরও বক্তব্য দেন- নাগরিক ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না, বিএনপির নির্বাহী কমিটির সদস্য ইসমাইল হোসেন বেঙ্গল, মুক্তিযোদ্ধা দলের সহ-সভাপতি ছানোয়ার হোসেন প্রমুখ।

বাংলাদেশে প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন চায় যুক্তরাষ্ট্র

নিউজ মিডিয়া ২৪: ঢাকা : জনমতের প্রতিফলন ঘটে এমন অবাধ, বিশ্বাসযোগ্য ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন অনুষ্ঠানের ব্যাপারে সরকারের দেয়া অঙ্গীকার বাস্তবায়নের আহ্বান জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক প্রিন্সিপাল উপ সহকারী পররাষ্ট্রমন্ত্রী এলিস ওয়েলস। মৌলিক অধিকার বিশেষ করে বাকস্বাধীনতা ও সংবাদপত্রের স্বাধীনতা রক্ষা করার ব্যাপারেও সরকারের প্রতি আহ্বান রেখেছেন তিনি।
তিন দিনের সফরের শেষ দিন সোমবার সন্ধ্যায় গণমাধ্যমের মুখোমুখি হন মার্কিন মন্ত্রী। ঢাকাস্থ মার্কিন দূতাবাসে আয়োজিত এ সংবাদ সম্মেলনে রাষ্ট্রদূত মার্সিয়া ব্লুম বার্নিকাটও উপস্থিত ছিলেন।
লিখিত বক্তব্যে এলিস ওয়েলস বলেন, বাংলাদেশের অর্থনীতি গতিশীল আর তা অতি দ্রুত বেড়ে চলেছে। গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান ও প্রশাসনিক কাঠামোগুলো জোরদার করা গেলে তা এদেশের ভবিষ্যত সাফল্যকে এগিয়ে নেবে। আর এ কারণেই আমরা বাংলাদেশ সরকারকে মৌলিক অধিকার বিশেষ করে বাক ও সংবাদপত্রের স্বাধীনতা রক্ষা করা এবং জনমতের প্রতিফলন ঘটে এমন অবাধ, বিশ্বাসযোগ্য ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন অনুষ্ঠানের ব্যাপারে দেওয়া অঙ্গীকার রক্ষা করার ব্যাপারে আহ্বান জানিয়ে যাচ্ছি। এখানে অংশ নেওয়া বৈঠকগুলোতে আমি যুক্তরাষ্ট্রের এ বার্তাটি পৌঁছে দিয়েছি।
সংবাদ সম্মেলনের প্রশ্নোত্তর পর্বে বাংলাদেশের সাম্প্রতিক রাজনীতি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের অবস্থানের কথা জানতে চান গণমাধ্যমকর্মীরা। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্র চায় বাংলাদেশে একটা প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ নির্বাচন হোক। সব রাজনৈতিক দল শান্তিপূর্ণভাবে এবং স্বাধীনভাবে তার রাজনৈতিক ভিশন ও নির্বাচনী ইশতেহার জনগণের সামনে প্রদর্শন করতে পারে। সরকার ও নির্বাচন প্রক্রিয়ার সঙ্গে যুক্ত যারা তারা যেন এ সুযোগ নিশ্চিত করে।

সোমবার বিকেলে সংবাদ সম্মেলন করবেন প্রধানমন্ত্রী

নিউজ মিডিয়া ২৪: ঢাকা: আগামীকাল সোমবার (২২ অক্টোবর) সংবাদ সম্মেলন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বিকাল চারটায় তার সরকারি বাসভবন গণভবনে এ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। সরকারি এক সূত্রে এতথ্য জানা গেছে।
সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রী তার সাম্প্রতিক সৌদি আরব সফরের বিস্তারিত কর্মকাণ্ড তুলে ধরবেন। পাশাপাশি সমসাময়িক রাজনৈতিক ইস্যুতে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেবেন।
সর্বশেষ গত ১৬ অক্টোবর থেকে ২০ অক্টোবর তিনি সৌদি আরব সফর করেন। সফরকালে বাংলাদেশ ও সৌদি আরবের মধ্যে পাঁচটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। এছাড়া তিনি সৌদি বাদশাহ ও যুবরাজের সঙ্গেও বৈঠক করেন। পাশাপাশি তিনি সৌদি রাজধানী রিয়াদের কূটনৈতিক এলাকায় বাংলাদেশ চ্যান্সারি ভবন উদ্বোধন এবং জেদ্দায় বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেল ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এবারের সৌদি আরব সফরে মদিনায় মসজিদে নববীতে মহানবী হজরত মুহাম্মদ (সা.)-এর রওজা জিয়ারত করেন এবং মক্কায় পবিত্র ওমরাহ পালন করেন।

পররাষ্ট্র সচিবের সঙ্গে মার্কিন উপ সহকারী মন্ত্রীর বৈঠক No icon ‘জনগণের আকাঙ্খার প্রকৃত প্রতিফলন ঘটবে’ এমন নির্বাচন দিন: ঢাকাকে ওয়াশিংটন

নিউজ মিডিয়া ২৪: ঢাকা : বাংলাদেশে অবাধ সুষ্ঠু ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচন দেখতে চায় যুক্তরাষ্ট্র, যে নির্বাচনে এদেশের জনগণের আকাঙ্খার প্রকৃত প্রতিফলন ঘটে। পররাষ্ট্র সচিব শহিদুল হকের সঙ্গে বৈঠকে এমন প্রত্যাশার কথা জানিয়েছেন ঢাকায় সফররত যুক্তরাষ্ট্রের দক্ষিণ ও মধ্য এশিয়া বিষয়ক মূখ্য উপ সহকারী মন্ত্রী এলিস ওয়েলস।
সকালে পররাষ্ট্র সচিব শহিদুল হকের সঙ্গে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে বৈঠক করেন তিনি। ঘণ্টাব্যাপী বৈঠকে বাংলাদেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতি, নির্বাচন, রোহিঙ্গা ইস্যু এবং দ্বিপাক্ষিক বিষয়াদি নিয়ে আলোচনা হয় হয় বলে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানিয়েছে।
বৈঠকের পর পররাষ্ট্র সচিব সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, অন্যন্য বিষয়ে বিস্তৃত আলোচনা হলেও রাজনৈতিক বিষয়ের আলোচনা কয়েক মিনিট স্থায়ী হয়। আলোচনায় মার্কিন উপ সহকারী মন্ত্রী বলেন, তার দেশ প্রত্যাশা করে বাংলাদেশে শান্তিপূর্ণ পরিবিশে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে এবং এতে সব দল অংশ নেবে। জবাবে পররাষ্ট্র সচিব জানিয়েছেন, বাংলাদেশের বর্তমান সরকারও এমন একটি নির্বাচন করতে চায়। এবং এজন্য সব প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে।

সমাবেশের অনুমোদন না দেয়ার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে ঐক্যফ্রন্টের রিট

নিউজ মিডিয়া ২৪: ঢাকা : ড. কামাল হোসেনের নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ডাকা সমাবেশের অনুমোদন না দেয়ার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট দায়ের করা হয়েছে। রোববার হাইকোর্টের সংশ্লিষ্ট শাখায় এই রিট করেন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের সিলেটের সমন্বয়ক আলী আহমদের পক্ষে আইনজীবী জগলুল হায়দার আফ্রিক। ড. কামাল হোসেন রিট আবেদনের শুনানিতে অংশ নেবেন বলে জানা গেছে।
রিটে স্বরাষ্ট্র সচিব, পুলিশের আইজি, সিলেটের পুলিশ কমিশনারসহ ৫ জনকে বিবাদী করা হয়েছে। সমাবেশের অনুমতি না দেয়া কেন অবৈধ ও বেআইনি ঘোষণা করা হবে না’ তা জানতে রুল জারির আর্জি জানানো হয়েছে রিটে।
আগামীকাল সোমবার হাইকোর্টের বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও মো. আশরাফুল কামালের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চে রিট আবেদনটির ওপর শুনানি হতে পারে বলে জানিয়েছেন আইনজীবী জগলুল হায়দার আফ্রিক।
ড. কামাল হোসেন সাংবাদিকদের বলেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ডাকা সমাবেশ করতে না দেয়ায় সাংবিধানিক অধিকার খর্ব করা হয়েছে। তাই সংবিধান অনুযায়ী, সংশ্লিষ্ট অনুচ্ছেদের সঙ্গে সাংঘর্ষিক বলে রিট করা হয়েছে। এ বিষয়ে আগামীকাল আমরা শুনানি করবো।
আগামী ২৩ অক্টোবর সিলেট নগরের রেজিস্টারি মাঠে সমাবেশের জন্য মহানগর পুলিশের কাছে অনুমতি চেয়েছিল জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। কিন্তু জাতীয় ঐক্যফ্রন্টকে সিলেটে সমাবেশের অনুমতি দেয়নি পুলিশ।
পুলিশ জানায়, এই সমাবেশকে ঘিরে বিশৃঙ্খলার আশঙ্কা করা হচ্ছে। তাই নগরের নিরাপত্তার স্বার্থে সমাবেশের অনুমতি দেয়া হয়নি।
গত ১৮ অক্টোবর (বৃহস্পতিবার) দুপুরে পুলিশের পক্ষ থেকে সমাবেশের অনুমতি না দেয়ার কথা জানানো হয় বলে ওইদিন সন্ধ্যায় বিষয়টি জানান, সিলেট জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট সিলেটের সমন্বয়ক আলী আহমদ।
সেদিন আলী আহমদ বলেন, আমরা ২৩ অক্টোবর দুপুরে সমাবেশের অনুমতি চেয়ে ১৬ অক্টোবর মঙ্গলবার মহানগর পুলিশ কমিশনার বরাবর লিখিত আবেদন করেছিলাম। দুপুরে আমার মোবাইলে কল দিয়ে কোতোয়ালি থানার ওসি সমাবেশের অনুমতি না দেয়ার কথা জানান। অনুমতি না পেলেও জাতীয় ঐক্যজোটের কেন্দ্রীয় নেতারা ২৩ তারিখ সিলেটে আসবেন। ওইদিন তারা হজরত শাহজালাল (রহ.) ও হজরত শাহ পরানের (রহ.) মাজার জিয়ারত করবেন।
এ ব্যাপারে কোতোয়ালি থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ সেলিম বলেন, এই সমাবেশকে ঘিরে বিশৃঙ্খলার আশঙ্কা করা হচ্ছে। তাই নিরাপত্তার স্বার্থে সমাবেশের অনুমতি দেয়া হয়নি।
গত ১৬ অক্টোবর বিএনপি, যুক্তফ্রন্ট ও জাতীয় ঐক্যপ্রক্রিয়ার সমন্বিত সরকারবিরোধী জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রথম বৈঠক শেষে জানানো হয়, ২৩ অক্টোবর সিলেট সফরের মধ্য দিয়েই যাত্রা শুরু করবে এই জোট। জোটের শীর্ষ নেতারা এইদিন সিলেট সফরে এসে হজরত শাহজালালের (র.) মাজার জিয়ারত করবেন। সেই সঙ্গে সিলেটের রেজিস্টারি মাঠে ঐক্যফ্রন্টের প্রথম সমাবেশেরও আয়োজন করা হবে বলে জানানো হয়।
এই সমাবেশকে ঘিরে সিলেটের রাজনীতিতে কিছুটা উত্তেজনা দেখা দেয়। একদিকে সমাবেশ সফলের প্রস্তুতি শুরু করেছিলেন বিএনপিসহ জোটের শরিক দলের নেতারা।
অন্যদিকে, ছাত্রলীগসহ ক্ষমতাসীন দলের অনেক নেতা জাতীয় ঐক্যজোটের অনেক নেতার বিরুদ্ধে নানা অভিযোগ এনে সিলেটে তাদের প্রতিহতের ডাক দেন। মূলত সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এই ডাক দেন তারা।