পদ্মা ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্তদের ঋণের শর্ত শিথিল করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক

নিউজ মিডিয়া ২৪: ঢাকা : শরীয়তপুরের নড়িয়াসহ কয়েকটি উপজেলা সম্প্রতি পদ্মা নদীর ভাঙনের কবলে পড়েছে। ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্তদের ঋণের শর্ত শিথিল করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক।
বুধবার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ এ সংক্রান্ত একটি নির্দেশনা জারি করে সব বাণিজ্যিক ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠিয়েছে।
নির্দেশনায় বলা হয়েছে, সম্প্রতি শরীয়তপুর জেলার নড়িয়া উপজেলাসহ কয়েকটি উপজেলা পদ্মা নদীর ভাঙনের শিকার হয়েছে। এতে বাজার, ঘর বাড়ি, মসজিদসহ বিভিন্ন স্থাপনা, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এবং ব্রিজ-কালভার্ট ইতোমধ্যে নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। ভাঙন কবলিত এলাকার ঋণগ্রহীতা কৃষি এবং এসএমই খাতের উদ্যোক্তারা ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় নির্ধারিত সময়ে ঋণ পরিশোধে সমস্যা হবে।
তাই নদী ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্ত ঋণগ্রহীতাদের স্বাভাবিক অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডে ফিরিয়ে আনতে তাদের পুনর্বাসনে আর্থিক নীতি সহায়তা প্রদানের নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।
এর মধ্যে রয়েছে: নদী ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক ও উদ্যোক্তারা যাতে ঋণ খেলাপিতে পরিণত না হন সে লক্ষ্যে ব্যাংকার-গ্রাহক সম্পর্কের ভিত্তিতে, ক্ষেত্র বিশেষে ডাউন পেমেন্ট এর শর্ত শিথিল করা। সর্বোচ্চ ছয় মাসের গ্রেস পিরিয়ডে কৃষি এবং এসএমই খাতের ঋণ পুনঃতফসিল করা। এছাড়া চাহিদার ভিত্তিতে নতুন ঋণ সুবিধা পেতে পারেন সে লক্ষ্যে কোন অর্থ জমা ব্যতিরেকেই পুনঃতফসিল পরবর্তী নতুন ঋণ সুবিধা প্রদান করা।
ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার কৃষকদের ক্ষতি কাটিয়ে ওঠার নিমিত্তে এবং আবাদযোগ্য (যদি থাকে) স্থানসমূহে কৃষি কর্মকাণ্ড অব্যাহত রাখতে বিশেষ কৃষি ঋণ হিসেবে ৪% রেয়াতি হার সুদে আমদানি বিকল্প ফসলসমূহে (ডাল, তৈলবীজ, মসলা ও ভুট্টা) কৃষি ও পল্লী ঋণ ঋণ প্রদান করা।
চলতি ২০১৮-১৯ অর্থবছরে নদী ভাঙনে সম্পূর্ণ বিলীন হওয়া নিঃস্ব কৃষকদের ব্যাংক ঋণের সুদ মওকুফের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা।
নতুন করে কোনো সার্টিফিকেট মামলা দায়ের না করা। একই সঙ্গে দায়েরকৃত সার্টিফিকেট ছয় মাস বন্ধ রেখে প্রয়োজনে সোলেনামার মাধ্যমে মামলার নিষ্পত্তি করার পরামর্শ নিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।
নতুন ঋণ পেতে কোনোরূপ হয়রানির শিকার না হন সে বিষয়ে নিবিড়ভাবে তদারকি করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এসব পুনঃতফসিলিকরণ ও পুনঃতফসিল পরবর্তী নতুন ঋণ প্রদান সুবিধা আগামী ২০১৯ সালের মার্চ পর্যন্ত বলবৎ থাকবে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

এবি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালকের পদত্যাগ

নিউজ মিডিয়া ২৪: ঢাকা : এবি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মসিউর রহমান চৌধুরী পদত্যাগ করেছেন। তিনি বৃহস্পতিবার তার পদত্যাগপত্র পরিচালনা পর্ষদের কাছে জমা দিয়েছেন। ব্যাংকটির একটি সূত্র এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, ব্যাংকটির সাবেক চেয়ারম্যানসহ বেশ কয়েকজন কর্মকর্তাকে দুদকে তলব করা হয়েছে। সেই কারণে এই ব্যাংকটির বিভিন্ন অনিয়ম এখন আলোচিত।

মসিউর রহমান চৌধুরী ২০১৭ সালের ৯ মার্চ থেকে এবি ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক পদে নিয়োজিত আছেন। এই পদে যোগদানের পূর্বে তিনি ব্যাংকের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক এবং ঋণ বিভাগের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। তার আগে ২০০৩ সালের ২৬ জুন ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে এবি ব্যাংক ক্রেডিট রিস্ক ম্যানেজমেন্ট ডিভিশনে যোগদান করেন। তিনি ১৯৮৪ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বি. কম (অনার্স), এম. কম (অ্যাকাউন্টিং) সম্পন্ন করে ‘সিনিয়র অফিসার-ফিনান্সিয়াল এনালিস্ট’ হিসেবে সোনালী ব্যাংক লিমিটেডে ব্যাংকিং কর্মজীবন শুরু করেন। তিনি সেখানে ২২ জুন ২০০৩ সাল পর্যন্ত অ্যাসিস্ট্যান্ট জেনারেল ম্যানেজার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তিনি ভিক্টোরিয়া বিশ্ববিদ্যালয়, মেলবোর্ন ও অস্ট্রেলিয়া থেকে এমবিএ ডিগ্রি সম্পন্ন করেন।

উল্লেখ্য, আরব-বাংলাদেশ ব্যাংকের (এবি) মহাখালী শাখার ৩৮৩ কোটি ২২ লাখ ১০ হাজার ৩৬৩ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় ব্যাংকটির সাবেক চেয়ারম্যান এম ওয়াহিদুল হকসহ পরিচালনা পর্ষদের ১২ জন পরিচালককে তলব করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। গত ১৭ সেপ্টেম্বর দুদকের উপ-পরিচালক মো. সামছুল আলম স্বাক্ষরিত এক নোটিশে তাদের তলব করা হয়।

অর্থনীতিতে ড. ইউনূসকে ফেলোশীপ দিল ইতালীয় ইউনিভার্সিটি

নিউজ মিডিয়া ২৪: ঢাকা : ইতালির ভেনিসে অবস্থিত ইউনিভার্সিটি অব ভেনিস কা’ ফসকারী বিশ্বের প্রাচীনতম বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর অন্যতম। সম্প্রতি বিশ্ববিদ্যালয়টি ১৫০তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপন করে। “নোবেল প্রাইজেস ইন দ্য চেয়ার প্রজেক্ট”-এর ধারাবাহিকতায় বিশ্ববিদ্যালয়ে খ্যাতনামা ব্যক্তিবর্গদের আমন্ত্রণ জানানো হয়। এরই অংশ হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয়টির প্রতিষ্ঠা বার্ষিকীতে ভাষণ দিতে আমন্ত্রণ জানানো হয় বাংলাদেশি নোবেল বিজয়ী ড. মুহাম্মদ ইউনূসকে। তিনি ক্ষুদ্র উদ্যোক্তাদের জন্য একটি উদ্ভাবনী ক্ষুদ্রঋণ ব্যবস্থা প্রবর্তন করেন। এতে তাদের আর্থ-সামাজিক অবস্থার উন্নয়ন ঘটে। তাঁর অসামান্য এই অবদানের জন্য ইউনিভার্সিটি অব ভেনিস প্রফেসর ইউনূসকে অর্থনীতিতে ফেলোশীপ প্রদান করে।

ইউনিভার্সিটি অব ভেনিস কা’ ফসকারীর রেক্টর মিশেল বুগলিয়েসি ইউনূস সোশ্যাল বিজনেস সেন্টার প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে ড. ইউনূসের সাথে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর করেন। এই নিয়ে বিশ্বব্যাপী ইউনূস সেন্টারের সংখ্যা দাঁড়ালো ৬৩টিতে। ইতালিতে এটি ৪র্থ ইউনূস সেন্টার।

উল্লেখ্য যে, ইউনূস সোশ্যাল বিজনেস সেন্টার হচ্ছে একটি গবেষণা কেন্দ্র। যেখানে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, ছাত্র ও সংশ্লিষ্ট কমিউনিটি প্রফেসর ইউনূসের দর্শন সম্পর্কে জ্ঞাত হয়। এর ভিত্তিতে সংশ্লিষ্ট এলাকার জরুরি সমস্যাগুলোর সমাধানে সামাজিক ব্যবসার বিভিন্ন আইডিয়া গড়ে তোলা হয়। বিশ্বের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে ইউনূস সোশ্যাল বিজনেস সেন্টার রয়েছে। নতুন সেন্টারটিও বাংলাদেশে অবস্থিত ইউনূস সেন্টারের মাধ্যমে একটি বিশ্বব্যাপী নেটওয়ার্কের অংশে পরিণত হলো।

এবি ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যানসহ ১২ জনকে দুদকে তলব

নিউজ মিডিয়া ২৪:ঢাকা: আরব-বাংলাদেশ ব্যাংকের (এবি) মহাখালী শাখার ৩৮৩ কোটি ২২ লাখ ১০ হাজার ৩৬৩ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে দায়ের করা মামলায় ব্যাংকটির সাবেক চেয়ারম্যান এম ওয়াহিদুল হকসহ পরিচালনা পর্ষদের ১২ জন পরিচালককে তলব করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। সোমবার (১৭ সেপ্টেম্বর) দুদকের উপ-পরিচালক মো. সামছুল আলম স্বাক্ষরিত এক নোটিশে তাদের তলব করা হয়েছে। দুদক সূত্র জানায়, ব্যাংকটির সাবেক চেয়ারম্যান এম ওয়াহিদুল হক, পরিচালক মো. ফিরোজ আহমেদ, সাবেক পরিচালক এম এ আউয়াল, প্রফেসর ডা. মো. ইমতিয়াজ হোসেনকে আগামী ১ অক্টোবর তলব করা হয়েছে। পরিচালক শিশির রঞ্জন বোস, পরিচালক সৈয়দ আফজাল হাসান উদ্দীন, সাবেক পরিচালক মিশাল কবির, সাবেক পরিচালক ফাহিমুল হককে ২ অক্টোবর তলব করা হয়েছে। একই বিষয়ে সাবেক পরিচালক মো. মেজবাহুল হক, আনোয়ার জামিল সিদ্দিকী, সাবেক পরিচালক বিবি সাহা রায় ও সাবেক পরিচালক জাকিয়া শাহরুদ খানকে আগামী ৩ অক্টোবর তলব করেছে দুদক।
গত বছরের ২৮ জুন রাজধানীর বনানী থানায় ৩৮৩ কোটি ২২ লাখ ১০ হাজার ৩৬৩ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে দুদকের উপ-পরিচালক মো. সামসুল আলম বাদী হয়ে মামলা দায়ের করেন। এতে সাবেক মন্ত্রী এম মোরশেদ খানসহ ১৬ জনকে আসামি করা হয়। মামলা তদন্তের স্বার্থে ব্যাংকের সাবেক চেয়ারম্যানসহ পরিচালনা পর্ষদের ১২ জনকে দুদকে তলব করা হয়।

মেক্সিকোয় টেলিভিশন সাংবাদিককে গুলি করে হত্যা

নিউজ মিডিয়া ২৪:ডেস্ক : মেক্সিকোর পর্যটন নগরী কানকুনে একজন টেলিভিশন সাংবাদিককে গুলি করে হত্যা করা হয়েছে। তার অফিস কর্তৃপক্ষ একথা জানিয়েছে। খবর বার্তা সংস্থা এএফপি, নিউভিশনের।
গণমাধ্যম কর্মীদের পেশাগত দায়িত্ব পালনের জন্য ঝুঁকিপূর্ণ মেক্সিকোতে এ নিয়ে চলতি বছর ১৮ সাংবাদিককে হত্যা করা হয়েছে।
জ্যাভিয়ার এনরিক রদ্রিগুয়েজ ভালাদারেস নামের ওই সাংবাদিক চ্যানেল ১০ এর ক্যামেরাম্যান ও সাংবাদিক ছিলেন।
এনরিকের অফিস থেকে বলা হয়েছে, তার পরিবার তার মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেছে।
কানকুন থেকে খবরে বলা হয়েছে, নগরীর মধ্যাঞ্চলে অপর এক ব্যক্তির সঙ্গে হেঁটে যাওয়ার সময় তাকে গুলি করা হয়।
স্থানীয় কর্মকর্তারা এখনও এই ব্যাপারে কিছু জানাননি।
চলতি বছর কানকুনে ভ্যালাডেরেসকে নিয়ে দুইজন সাংবাদিক সহিংস হামলায় নিহত হলেন। এর আগে গেল মাসেই প্লায়া দেল কারমেনে একটি বারের বাইরে প্লায়া নিউজ উইকলির সাংবাদিক রুবেন প্যাটকে গুলি করে হত্যা করা হয়। এই এলাকাটি পর্যটন কেন্দ্র থেকে খুব একটা দূরে নয়।
উল্লেখ্য, মাদক সহিংসতায় জর্জরিত মেক্সিকোয় গেল বছর ১১ জন সাংবাদিককে হত্যা হয়।
বিভিন্ন বাক স্বাধীনতা সংস্থার তথ্যানুযায়ী, মেক্সিকোয় গেল ২০০০ সাল থেকে এখন পর্যন্ত একশ’র বেশি সাংবাদিককে হত্যা করা হয়েছে। এসব হত্যাকাণ্ডের বেশির ভাগেরই কোনও বিচার হয়নি বলে জানিয়েছে তারা।

ডলার সংকট সহসাই কাটছে না

নিউজ মিডিয়া ২৪:ঢাকা: এক অর্থবছরে ব্যাংকগুলোর কাছে ২৩১ কোটি মার্কিন ডলার বিক্রি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। কিন্তু তারপরও ডলারের উচ্চমূল্যের লাগাম টানা দুঃসাধ্য হয়ে পড়েছে। ডলারের এই টানাপোড়েন তথা সংকট সহসাই কাটছে না বলে মনে করছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। তাই সরকারের উচ্চাভিলাসী পণ্য আমদানির লাগাম টেনে ধরতে চাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি।

তবে ব্যাংকাররা বলছেন, ডলারের চাহিদা মূলত তৈরি হয়েছে সরকারের মেগা প্রকল্পের কারণে। নিজস্ব অর্থায়নে স্বপ্নের পদ্মাসেতু কিংবা উন্নয়নের রসদ বিদ্যুতের যোগান- সবক্ষেত্রেই বিপুল পরিমাণ যন্ত্রণাংশ আমদানি প্রয়োজন। সে জন্য প্রয়োজন বিপুল পরিমাণে বৈদেশিক মুদ্রাও।

এক সময় দেশীয় ব্যাংকগুলো বৈদেশিক মুদ্রায় ঋণপত্র খুলে কমিশন থেকে ব্যাপকমুনাফা করলেও এখন এই ঋণের দায় মেটাতেই হিমশিম খেতে হচ্ছে তাদের। চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় খুব দ্রুতই বেড়েছে ডলারের দাম। দেশের আমদানি-রফতনির মধ্যে গড়ে উঠেছে বিস্তর ব্যবধান।

সবশেষ পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত অর্থবছরের মে পর্যন্ত রফতানি প্রবৃদ্ধি হয়েছে মাত্র ৬ দশমিক ৬৬ শতাংশ। এ সময়ে রেমিট্যান্সের প্রবৃদ্ধি হয়েছে মাত্র ১৭ শতাংশ। কিন্তু আমদানির প্রবৃদ্ধি হয়েছে এই দুইয়ের যোগফল থেকে অনেক বেশি, ২৫ দশমিক ১৭ শতাংশ। তারপরও কেন্দ্রীয় ব্যাংক ডলার বিক্রি করে টাকার বিপরীতে ডলারের দর ধরে রাখতে পারছে না।

২০১৭-১৮ অর্থবছরে ব্যাংকগুলোর কাছে ২৩১ কোটি ডলার বিক্রি করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। উচ্চ মূল্যে ডলার কিনতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছে ব্যাংকগুলো। কারণ বিদ্যমান তারল্য সংকটের মধ্যে এর বিপরীতে টাকার যোগান দেয়াটাই এখন বড় চ্যালেঞ্জ।

ডলারের চাহিদা সাম্প্রতিক সময়ে কমবে না বলেও মনে করেন ঢাকা ব্যাংক সিইও সৈয়দ মাহবুবুর রহমান ।

মোবাইলে মিনিট প্রতি কলচার্জ ১০ পয়সা করার দাবি

নিউজ মিডিয়া ২৪: ঢাকা: দেশের সব মোবাইল ফোন অপারেটরের মিনিট প্রতি কলচার্জ ১০ পয়সা করার দাবি জানিয়েছে সিটিজেন রাইটস মুভমেন্ট। বিটিআরসি সব মোবাইলের জন্য প্রতি মিনিট সর্বোচ্চ ২ টাকা এবং সর্বনিম্ন ৪৫ পয়সা ট্যারিফ নির্ধারণের পর শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে এই দাবি জানায় গ্রাহকদের সংগঠনটি।

সংবাদ সম্মেলনে নিয়ন্ত্রক প্রতিষ্ঠান বিটিআরসির নানা ভূমিকার সমালোচনাও করা হয়।

সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পড়ে শোনান সিটিজেন রাইটস মুভমেন্টের মহাসচিব তুষার রেহমান। বিটিআরসির সাবেক চেয়ারম্যান সৈয়দ মার্গুব মোর্শেদও এতে উপস্থিত ছিলেন।

বিটিআরসির কলরেট নির্ধারণকে ‘হাস্যকর’ বলে মন্তব্য করে তুষার রেহমান বলেন, “কলরেট বিষয়ে বিটিআরসির ভাষ্য শুনলে মনে হয়, তারা মোবাইল ফোন কোম্পানিগুলোর মুনাফা বাণিজ্যের অংশীদার বৈ কিছু নয়।”

সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করা হয়, কখনও কলরেট বাড়িয়ে, কখনও নানা প্যাকেজের ‘ফাঁদে’, কখনো বা ভিওআইপি ব্যবসার ফাঁকে মোবাইল ফোন অপারেটররা বিদেশে ‘প্রায় ৫ লাখ কোটি’ টাকা পাচার করেছে।

মোবাইল ফোন অপারেটরদের বিরুদ্ধে অবৈধ ভিওআইপি ব্যবসার অভিযোগ তুলে তা তদন্তের দাবিও জানায় সংগঠনটি।

মোবাইল ফোনের কল চার্জ বিষয়ক গবেষণার জন্য বিটিআরসি একসময় যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক প্রাইস ওয়াটার হাউজ কুপার্সকে দায়িত্ব দিয়েছিল।

তবে হাউজ কুপার্সের ‘সঠিক প্রতিবেদন’ প্রকাশিত হয়নি বলে জানিয়ে মার্গুব মোর্শেদ বলেন, “আমাদের দেশের ন্যাশনাল অডিট হাউজই এই কাজ করতে পারবে। তারাই বের করতে পারবে কত টাকা ইনভেস্টমেন্ট হয়েছে, কত টাকাই বা দেশ থেকে বেরিয়ে গেছে। দরকার নেই হাউজ কুপার্সের।”

সংবাদ সম্মেলনে ১১ দফা দাবি উত্থাপন করেন তুষার রেহমান।

দুই দশকে মোবাইল ফোন অপারেটররা কত টাকা বিদেশে নিয়েছে, তা নিয়ে একটি শ্বেতপত্র প্রকাশের দাবি জানান তিনি। বিটিআরসির স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার লক্ষ্যে একটি সামাজিক পর্যালোচনা পরিষদ গঠনের দাবিও জানানো হয়।

তরুণ প্রজন্মের কথা ভেবে রাত ১০টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত এই ৮ ঘণ্টা প্রতি মিনিট সর্বোচ্চ কল চার্জ ১ টাকা নির্ধারণ করার দাবি জানিয়েছে সিটিজেন রাইটস মুভমেন্ট। প্রতি ১০ জিবি ইন্টারনেটের মূল্য ১০০ টাকা নির্ধারণের দাবিও জানিয়েছে তারা।

মার্কিন কংগ্রেস সদস্যের সঙ্গে এফবিসিসিআই’র বৈঠক

নিউজ মিডিয়া ২৪: ঢাকা : দ্বি-পক্ষীয় বাণিজ্যের বিভিন্ন দিক নিয়ে ঢাকা সফররত যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেস সদস্য জিম বেটসের সঙ্গে বৈঠক করেছেন এফবিসিসিআই নেতারা।
রোববার ঢাকায় এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয় বলে ফেডারেশন অব বাংলাদেশ চেম্বার্স অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিজের (এফবিসিসিআই) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়।
তৈরি পোশাক শিল্পের অন্যতম কাঁচামাল তুলা আমদানি, যুক্তরাষ্ট্রের বাজারে বাংলাদেশি পণ্যের জন্য জিএসপি সুবিধাসহ অন্যান্য বিষয়ে বৈঠকে আলোচনা করেন ব্যবসায়ী নেতারা।
এফবিসিসিআই সভাপতি মো. শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন, সহ-সভাপতি মো. মুনতাকিম আশরাফ এবং বিজিএসইএ-এর সাবেক সভাপতি আতিকুল ইসলাম আলোচনায় অংশ নেন।
এফবিসিসিআই পরিচালক রাশেদুল হোসেন চৌধুরী (রনি) এবং তৈরি পোশাক শিল্পের নেতারা সভায় উপস্থিত ছিলেন।

দেশে মূল্যায়ন পান না প্রবাসী উদ্যোক্তারা: মুহিত

নিউজ মিডিয়া ২৪: দেশে প্রবাসী বাংলাদেশি উদ্যোক্তারা যথাযথ মূল্যায়ন না পাওয়ায় প্রবাসী বিনিয়োগ কম বলে মনে করেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত।
মঙ্গলবার রাজধানীতে ‘এসডিজির অর্থায়নে দক্ষিণ-দক্ষিণ সহযোগিতা’ শীর্ষক একটি বইয়ের প্রকাশনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ মন্তব্য করেন।

শেরে বাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে এ অনুষ্ঠান হয়। ইআরডি সচিব কাজী শফিকুল আযমের অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, “এদেশে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে অন্যান্য বিনিয়োগকারীদের মতো ইতিবাচক আচরণ পাচ্ছেন না প্রবাসীরা।”

তিনি বলেন, “আমাদের প্রবাসীরা বিদেশে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে যে সুযোগ-সুবিধা পেয়ে থাকেন তা দেশে পান না। দেশে একজন বিদেশি বিনিয়োগকারীর সাথে যে আচরণ করা হয়, প্রবাসী উদ্যোক্তাদের ক্ষেত্রে তা করা হয় না।

“তাই আমাদের প্রবাসীরা বিদেশে বিনিয়োগে সফল হতে পারলেও দেশে তেমনটা হতে পারছেন না। কিন্তু তারা দেশেও বিনিয়োগে আগ্রহী।আবার প্রবাসীরাও দেশে বিনিয়োগের জন্য ধৈর্য নিয়ে অপেক্ষা করছেন না।”

অর্থমন্ত্রী বলেন, প্রবাসী বিনিয়োগের কাজে লাগানোর ক্ষেত্রে ভারত সবচেয়ে সফল হয়েছে। বাংলাদেশ প্রবাসী বিনিয়োগ সফলতার সঙ্গে এগিয়ে নিতে পারছে না।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশ টেকসই উন্নয়নের অর্থায়নের ক্ষেত্রে দক্ষিণ-দক্ষিণ সহযোগিতা বিরাট ভূমিকা রাখতে পারে। অর্থায়নের নতুন উৎস হিসেবে দক্ষিণ-দক্ষিণ সহযোগিতা বিষয়টি খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

অনুষ্ঠানে জাতিসংঘের প্রতিনিধি সুদীপ্ত মুখার্জী বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশের অর্থনীতি যেভাবে এগিয়ে যাচ্ছে তাতে বিদেশি বিনিয়োগের গতি আরও বেশি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু কোথায় বিনিয়োগ করতে হবে বিনিয়োগকারীদের কাছে এ তথ্য পৌঁছাতে পারছে না।

“আরেকটি হচ্ছে সমস্যা হচ্ছে আস্থার অভাব। বিনিয়োগকারীরা এদেশে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে যে আস্থার প্রয়োজন, তা পাচ্ছেন না।”

এক্ষেত্রে বাংলাদেশের সরকার ও সংশ্লিষ্টদের আরও বিনিয়োগবান্ধব হলে সুফল পাওয়া যেতে পারে বলে তনি মনে করেন।

স্বর্ণ কারসাজি তদন্তে বাংলাদেশ ব্যাংকের ৬ সদস্যের কমিটি

নিউজ মিডিয়া ২৪:ডেস্ক: বাংলাদেশ ব্যাংকের ভল্টে রাখা স্বর্ণ কারসাজি নিয়ে শুল্ক গোয়েন্দাদের প্রতিবেদন গণমাধ্যমে প্রকাশের পর অবশেষে ৬ সদস্যের উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন তদন্ত কমিটি গঠন করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক। এই কমিটিকে দুই মাসের মধ্যে বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নরের কাছে প্রতিবেদন দিতে বলা হয়েছে। ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক এএনএম আবুল কাসেমকে কমিটির প্রধান করা হয়েছে। এছাড়া ৬ সদস্যের এই কমিটিতে বাংলাদেশ ব্যাংকের চারজন জিএম (মহাব্যবস্থাপক) ও একজন ডিজিএম রয়েছেন। মঙ্গলবার বাংলাদেশ ব্যাংকের সংশ্লিষ্ট সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।
সূত্র জানায়, মঙ্গলবার থেকেই কমিটি কাজ শুরু করে দিয়েছে। আগামী দুই মাসের মধ্যে গভর্নরের কাছে এ সংক্রান্ত প্রতিবেদন জমা দিতে হবে। এর আগে সোমবার সরকারের শীর্ষ পর্যায়ের নির্দেশে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর ফজলে কবির এই কমিটি গঠন করে দেন।