জুতো লুকিয়ে ৫০ লাখ ডলার চাইলেন শালী, জামাইবাবু অজ্ঞান!

নিউজ মিডিয়া ২৪: ঢাকা :ডেস্ক: দিদির বিয়েতে জুতো লুকিয়ে রাখবেন। তার জন্য দাবি করে বসলেন ৩২ কোটি! হবু জামাইবাবু নিক জোনাস সেটা শুনে রীতিমত অজ্ঞান। তবে শালী পরিণীতি চোপড়ার এমন আবদারে বেশ মজা পেয়েছেন তিনি।
সম্প্রতি আমস্টারডামে ব্যাচেলর ট্রিপে গিয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা। সঙ্গে নিয়েছিলেন বন্ধুবান্ধবদের। মুকেশ আম্বানীর মেয়ে ইশা, হবু জা সোফি টার্নারও তার সঙ্গে গিয়েছিলেন। সফরসঙ্গী হয়েছিলেন চাচাতো বোন পরিণীতিও।
সেখান থেকে ফিরে ইনস্টাগ্রামে প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে একটি ছবি আপলোড করেন পরিণীতি। তাতে মন্তব্য করেন, প্রিয়াঙ্কার হবু স্বামী নিক জোনাস। পরিণীতির উদ্দেশে লেখেন, ‘তোমার পাশের জন খুব সুন্দরী। আমার সঙ্গে আলাপ করিয়ে দেবে?’
জবাবে পরিণীতি লেখেন, ‘ওর নাগাল পাওয়া শক্ত। তোমার জন্য চেষ্টা করতে পারি। তবে একটা শর্ত রয়েছে। জুতো লুকনো বাবদ ৫০ লক্ষ মার্কিন ডলার দিতে হবে।’
ভারতীয় বিয়ের অনুষ্ঠানে বরের জুতো লুকিয়ে রাখার প্রথা রয়েছে বটে। কিন্তু সাধারণত হাজার-দু’হাজারেই সন্তুষ্ট থাকেন শ্যালিকারা। তবে প্রিয়াঙ্কার হবু বর তো আর সাধারণ কেউ নন। গায়ক হিসাবে বেশ জনপ্রিয় তিনি। ব্যবসায়ী বাবার ছেলে। অন্যদিকে পরিণীতি নিজেও নামকরা অভিনেত্রী। তাই তারকা শ্যালিকা হিসেবে তারকা জামাইবাবুর কাছে এমন আবদার তিনি রাখতেই পারেন।
নভেম্বরের শেষদিকেই প্রিয়াঙ্কা ও নিক আনুষ্ঠানিকভাবে দাম্পত্য জীবন শুরু করবেন।

‘মিস ওয়ার্ল্ড’ প্রতিযোগিতার সেই সুন্দরীর করুণ কাহিনি!

নিউজ মিডিয়া ২৪: ডেস্ক: গত ৩০ সেপ্টেম্বর বসুন্ধরা কনভেনশন সেন্টারে জাঁকজমক আয়োজনে পর্দা নামলো মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ ২০১৮ এর গ্র্যান্ড ফিনালের। প্রায় ৩০ হাজার প্রতিযোগীকে পেছনে ফেলে এবারের আসরে মুকুট জয় করে নিলেন পিরোজপুরের মেয়ে জান্নাতুল ফেরদৌস ঐশী।
তবে বিজয়ীর চেয়েও আলোচনায় এগিয়ে দুজন। তারা হলেন লাবণী ও অনন্যা। এ আয়োজনে সেরা দশজনকে বিভিন্ন প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়েছিল বিচারকের। এর মধ্যে আফরিন সুলতানা লাবণীকে বিচারক সাদিয়া ইবনাজ ইমি প্রশ্ন করেছিলেন, ‘তাকে যদি তিনটি উইশ করতে বলা হয়, সে উইশগুলো কি হবে এবং কাকে উইশ করতে চান’? এমন প্রশ্নে লাবণী জানিয়েছিলেন, বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় সি-বিচ কক্সবাজার, সুন্দরবন এবং পাহাড়-পর্বতকে তিনি উইশ করতে চান।
এমন উত্তরে বিচারকমণ্ডলী ও দর্শক মহলসহ সারাদেশের মানুষ এ বিষয়টিকে বেশ হাস্যকরভাবে নিয়েছে। বিষয়টি বর্তমানে সারাদেশে ভাইরাল হয়ে যায়। যে যার মতো করে ট্রল করছে, নানা কটূক্তি করছে।
এ বিষয়ে মুখ খুলেছেন লাবণী। তিনি আজ (রোববার) একটি অনলাইনকে বলেন, “আমাকে যখন বিচারক প্রশ্ন করলেন তখন আমি যে কি বলেছি তা আমি নিজেও জানি না। তখন আমি কেমন সিচুয়েশন পার করছিলাম সেটা শুধু আমি জানি। আমি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে হিসাববিজ্ঞান বিভাগে চতুর্থ বর্ষে পড়ছি। একটা পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রী ‘উইশ’র মানে জানবে না এটাও সবার বিশ্বাস করতে হয়! উইশের মানে সবাই জানে, আমিও জানি। কিন্তু আমি বিচারকের প্রশ্নে তাদের মতো করে কিংবা দর্শকদের মতো করে উত্তরটা দিতে পারিনি। এজন্য আমি এখন সবার কাছে হাসির পাত্র হয়ে গেছি। যে যার মতো করে কথা বলছে, কমেন্ট করছে, ট্রল করছে। এতে আমার মানসিক অবস্থাটা কেমন হয় সেটা কেউ ভাবছে না।”
নাবিলা সেই সময় নিজের মানসিক অবস্থার কথা জানাতে গিয়ে বললেন এক করুণ কাহিনী। তিনি বলেন, ‘আমার পরিবারে আমার বাবা-মা আমি আর দুই বড় বোন। দুই বোনেরই বিয়ে হয়ে গেছে। বাবা রাজবাড়ীতে ব্যবসা করেন। আমি শুধু মাকে নিয়ে ঢাকায় থাকি। ১১ মাস ধরে মা আমার সাথে ঢাকায়। আমার মায়ের দুটা কিডনিই পুরোপুরি নষ্ট হয়ে গেছে। যার জন্য আমার মায়ের শারীরিক অবস্থা প্রতিনিয়ত খারাপের দিকে যাচ্ছে।
প্রতিদিন চারবার করে ডায়ালাইসিস করতে হতো। প্রথম দিকে চিকিৎসকরা করলেও পরে সেটা শিখে আমি নিজেই করতাম। কিছুদিন আগে খুব খারাপ অবস্থা হলে আম্মুকে বারডেম হাসপাতালে ভর্তি করি। সবকিছু আমার একাই করতে হতো। মাকে এভাবে রেখেই আমি গ্রুমিং ক্লাস করতে যেতাম। সবসময় যেতে একটু দেরি হতো, কারণ আমার মাকে দেখার কেউ নেই। বাবা যদি মায়ের কাছে চলে আসেন তাহলে চিকিৎসার জন্য টাকার ব্যবস্থা করবেন কীভাবে? এসব মানসিক অবস্থা নিয়েই নিজের ভাগ্য পরিবর্তনের স্বপ্ন দেখেছিলাম আমি। একটা প্লাটফর্ম চেয়েছিলাম নিজের জন্য।’
তিনি আরও বলেন, ‘যখন মিস ওয়ার্ল্ড বাংলাদেশ ২০১৮ এর ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে সেদিন ৯টার মধ্যে কনভেনশন সেন্টারে থাকার কথা ছিল। আমার সেখানে পৌঁছাতেও দেরি হয়। আম্মুর অবস্থা সেদিন খুবই খারাপ ছিল। আমি আসার কিছুক্ষণ পর হাসপাতাল থেকে নার্স ফোন দিয়ে জানালো আমার মা মারা গেছে! এ খবর শুনে আমি চোখে সরষে ফুল দেখছিলাম। একদিকে স্বপ্ন পূরণের এত কাছে দাঁড়িয়ে আছি। অন্যদিকে মায়ের মৃত্যুর খবর। কী করবো আমি ঠিক বুঝে উঠতে পারছিলাম না।’
এ অবস্থায় আমার মানসিক অবস্হা কেমন ছিল সেটা শুধু আমি জানি। এ কথা আমি কাউকে জানাইনি। এখানে স্টেজে মোবাইল আনাও নিষেধ ছিল। আমি স্টেজের পেছনে পিলারের কাছে লুকিয়ে রেখেছিলাম। সেখানেই নার্সের সঙ্গে কথা বলেছিলাম। আমার অবস্থা যখন ভয়াবহ তখনই আবার ফোন আসে। আমি জানতে পারলাম আমার আম্মুর পাশের বেডের একজন মারা গেছে, আম্মু নয়। হাসপাতালে আমি নেই আম্মু একা তাই আরও ভয় পাচ্ছিলেন খুব। আর এ কারণে সেদিন আম্মুর অবস্থা আরও বেশি খারাপ হয়ে গিয়েছিল। নার্স আমাকে মেসেজ দিয়ে জানালো যে, তাকে এখনই আইসিওতে নিতে হবে না হলে খুব বিপদ হবে।
আমার ভেতর যে কি কাজ করছিল তা বোঝানোর মতো নয়। আমি বললাম, আইসিওতে নিয়ে যান আমি একটু পরই আসছি। আমার দেহটা স্টেজে থাকলেও আমার মন পড়েছিল মায়ের কাছে। চাইছিলাম রেজাল্ট যা কিছু হোক এটা যেন দ্রুত শেষ হয়। কারণ আমার সমস্যার জন্য তো আর অনুষ্ঠান আটকে রাখা যাবে না। এসবের মধ্যে হাসতে হাসতে পারফর্ম করেছি। বিচারকদের প্রশ্নের জবাব খুঁজেছি। স্টেজের পেছনে যাওয়ার সুযোগ পেলেই খোঁজ নিতাম। এর মধ্যে বিচারকের প্রশ্নে কি উত্তর দিয়েছি আমি নিজেও তা জানি না। মানুষ কোনো দিন আমার সেদিনের অবস্থা বুঝবে না। তারা কেবল এটাই বুঝতে পেরেছে একটা মেয়ে সেরা সুন্দরী হতে চায় কিন্তু উইশ করার মানে জানে না।
লাবণী আবেগতাড়িত কণ্ঠে বলেন, ‘গ্রান্ড ফিনালের একদিন পরই আমার মা মারা যায়। আমার মায়ের কথাগুলো এখনো কানে বাজে।’
লাবণী বলেন, ‘এখন অনেকেই বলতে পারেন যে, মাকে এমন অবস্থায় রেখে আমি কেন অংশগ্রহণ করলাম মিস ওয়ার্ল্ডে। এটা আমার মায়ের স্বপ্ন ছিল। আমার কাছে আমার মা-ই আমার পৃথিবী। আমাকে ভীষণ ভালোবাসতো। আমি সাইক্লিং, বাইক রাইডিং, সাঁতার সবই পারি! ব্ল্যাকবেল্টও ছিলাম মার্শাল আর্টে। আমার মা আমাকে বলতো একদিন আমি অনেক বড় হবো। আমি যেন স্বপ্নগুলোকে পূরণ করি। আরও বলতো তিনি তো বেশিদিন থাকবেন না, আমি যেন তার স্বপ্নপূরণে পিছপা না হই। মিস ওয়ার্ল্ডে যখন সিলেক্ট হই তখন মা আমাকে আরও বেশি সাপোর্ট দিতেন। ফাইনালের দিনই মায়ের সাথে আমার শেষ কথা হয়। এরপর আর কথা বলেননি। ২ অক্টোবর দুপুরে আম্মু মারা যান। এরপর আম্মুর লাশ রাজবাড়ীতে নিয়ে এসে দাফন করেছি।’
মিস ওয়ার্ল্ড বিজয়ী প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমার কোনো আক্ষেপ নেই। আসরের প্রথম দিকে আমি এগিয়ে ছিলাম। আমার মধ্যে সব কোয়ালিটিই ছিল। চারটা রাউন্ড পার করে ফাইনালে এসেছি। এরপর যে কি হলো তা আর জানি না। কপালে ছিল না হয়তো।’

মা হচ্ছেন আনুশকা !

নিউজ মিডিয়া ২৪: ডেস্ক : গত বছরের ডিসেম্বরে ভারতীয় ক্রিকেট দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলির সঙ্গে বিয়ের মধ্য দিয়ে ঘর বেঁধেছেন বলিউডের অভিনেত্রী আনুশকা শর্মা। আর, তার কিছুদিন পর থেকেই গুঞ্জন শুরু হয়েছে, মা হচ্ছেন এ অবিনেত্রী।
তারই ধারাবাহিকতায়, মুক্তির অপেক্ষায় থাকা, ‘সুই ধাগা’ সিনেমার প্রচারে সহ-অভিনেতা বরুন ধাওয়ানের সঙ্গে একটি অনুষ্ঠানেহাজির হলে দেখা যায়, চেয়ার থেকে ওঠার সময় বেশ সাবধানতা অবলম্বন করছেন আনুশকা। এছাও তার পরনে ছিলো ঢিলেঢালা পোশাক। আর এতেই বলি মহলে গুঞ্জন হয়েছে, মা হচ্ছেন ‘অ্যা দিল হ্যায় মুশকিল’ মুভির এ অভিনেত্রী।
এর আগেও এমন গুঞ্জন উঠেছিল যখন বিরাট কোহলি একটি টুইটারে লিখেন, ‘এখন অনেক কিছুই ঘটছে। খুব তাড়াতাড়ি আপনারাও জানতে পারবেন।’
তবে শেষ পর্যন্ত তা গুঞ্জনই থেকে যায়।

রোহিঙ্গা নির্যাতনকারীদের বিচারের দাবিতে হলিউডে বিক্ষোভ

নিউজ মিডিয়া ২৪: ডেস্ক: মিয়ানমারের রাখাইনে রোহিঙ্গা জনগোষ্ঠী নিধনের অভিপ্রায়ে বর্বরোচিত হামলায় দায়ীদের আন্তর্জাতিক আদালতে সোপর্দ করার দাবিতে বিক্ষোভ কর্মসূচি পালিত হয়েছে। গত শনিবার লসএঞ্জেলেস সিটিতে বিশ্বখ্যাত হলিউডে ডলবি থিয়েটারের সামনে বাংলাদেশিসহ বিভিন্ন দেশের মানবাধিকার কর্মীরা বিক্ষোভ-সমাবেশ করেন। এসময় তারা রোহিঙ্গাদের সসম্মানে বসতভিটায় ফিরে যাবার পরিবেশ তৈরির জন্য আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
বাংলাদেশি সমাজকর্মী মোহাম্মদ শাহজাহান বাবুল ও মিয়ানমারের জাহিদ আরাকানের নেতৃত্বে অনুষ্ঠিত এই বিক্ষোভ থেকে অবিলম্বে রোহিঙ্গা নির্যাতন বন্ধ, সসম্মানে তাদের বাংলাদেশ থেকে স্বদেশ প্রেরণের নিমিত্তে মিয়ানমার সরকার, ইউরোপীয় ইউনিয়ন, যুক্তরাষ্ট্র সরকার ও জাতিসংঘের দৃষ্টি আকর্ষণ করা হয়। এসময় বক্তব্য রাখেন মেক্সিকান-আমেরিকান কমিউনিটির পক্ষে আলফ্রানসো গমেজ, আফ্রিকান আমেরিকান কমিউনিটির পক্ষে রিচার্ড, নাইজেরিয়ান কমিউনিটির পক্ষে একনস, ইহুদি কমিউনিটির পক্ষে সিনথিয়া, খ্রীস্টান চার্চের পক্ষ থেকে এ্যামি। এছাড়া ভারতীয় রাজবিহারী, নেপালী শিদু ও ভুটানের থিমপাও বক্তব্য রাখেন।

বলিউড ভাইজানের প্রথম ভালো লাগা কে?

নিউজ মিডিয়া ২৪: ডেস্ক : একের পর এক ব্যবসা সফল ছবি উপহার দিয়েছেন বলিউডের সুপারস্টার সালমান খান। বলিউডের নায়িকা ঐশ্বরিয়া রায়, ক্যাটরিনা কাইফ, ডেইজি শাহসহ অনেকের সঙ্গেই তার প্রেমের গুঞ্জন শোনা যায়।
এবার জানা গেল সালমানের প্রথম ভালো লাগা কে ছিলেন। তার প্রথম ভালো লাগা ছিলেন একজন শিক্ষিকা। হ্যাঁ, নিজের শিক্ষিকার প্রেমে পড়েছিলেন বলিউডের ভাইজান।
ভারতীয় একটি টেলিভিশনের রিয়েলিটি শো-এর মঞ্চে এমন কথাই জানিয়েছেন তিনি। সালমান জানিয়েছেন, স্কুলে পড়ার সময় এক শিক্ষিকাকে তার ভালো লাগতো। স্কুলে কাটানো সময়ে সেই শিক্ষিকাকে সারাক্ষণ অনুসরণ করতেন তিনি।
এখানেই ক্ষান্ত হননি সালমান আরও জানিয়েছেন, গৃহশিক্ষিকা তাকে যখন পড়াতে আসতেন। তখনও তার পাশে থাকার চেষ্টা করতেন।
সালমান খান এখন পরিচালক আলী আব্বাস জাফরের ‘ভারত’ ছবির শুটিং করছেন। ছবিতে তার বিপরীতে ক্যাটরিনাসহ একঝাঁক বলিউড অভিনেত্রী রয়েছেন। প্রথমে প্রিয়াঙ্কার এই ছবিতে অভিনয়ের কথা শোনা গেলেও পরবর্তীতে নিজেকে গুটিয়ে নেন প্রিয়াঙ্কা।

ওমর সানি’র চেয়ে বেশি জনপ্রিয় সালমান শাহ: মৌসুমী

নিউজ মিডিয়া ২৪: ডেস্ক : নায়ক ওমর সানির সঙ্গে সংসার করছেন জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা মৌসুমী। মিডিয়ার বেশিরভাগ তারকাদের সংসার না টিকলেও এই তারকা জুটির সুখের সংসার।
তবে ওমর সানিকে জীবনে চলার পথে সবচেয়ে বড় অবলম্বন, সবচেয়ে বড় বন্ধু বলে দাবি করলেও ওমর সানির চেয়ে জনপ্রিয়তার দৌড়ে অমর নায়ক সালমান শাহকে এগিয়ে রাখলেন মৌসুমী।
সম্প্রতি একটি অনুষ্ঠানে তিনি এ কথা বলেন। জনপ্রিয় উপস্থাপিকা মারিয়া নূর-এর সঙ্গে কথোকথনে মৌসুমী নিজের লেখা কবিতা আবৃত্তি করেন, গান গেয়ে শোনান।
চিত্রনায়িকা মৌসুমী সম্প্রতি পূর্ণ করেছেন চলচ্চিত্র অভিনয় জীবনের ২৫ বছর। এই বিশেষ ক্ষণটিকে স্মরণীয় করে রাখতেই অনুষ্ঠানটিতে আমন্ত্রণ জানানো হয় মৌসুমীকে।
আলাপচারিতার ফাঁকেই উঠে আসে বিভিন্ন তথ্য। বলিউডে মিঠুন চক্রবর্তী ও আমির খানের সঙ্গে একটা সময় হিন্দি ছবিতে অভিনয় করার কথা ছিল তার। এ তথ্যও জানান মৌসুমী।
মৌসুমী আরো বলেন, শাবনূর আর তার মধ্যে শাবনূর সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়। অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে চলচ্চিত্র ক্যারিয়ারের রজত জয়ন্তী উদযাপনের কেক কাটেন মৌসুমী।
রুম্মান রশীদ খান-এর গ্রন্থনা ও পরিকল্পনায় অনুষ্ঠানটি প্রযোজনা করেছেন অজয় পোদ্দার। ঈদের দিন রাত ৮টায় মাছরাঙা টেলিভিশনে অনুষ্ঠানটি প্রচার হবে।

খোলামেলা ছবি পোস্ট করে সমালোচনার মুখে সারা

নিউজ মিডিয়া ২৪: আবার বিতর্কের শিরোনামে অভিনেত্রী সারা খান। কিছুদিন আগে বাথটাবে গোসলের দৃশ্য ভাইরাল হয়ে গিয়েছিল তার। সেবার বলেছিলেন, বোনের সঙ্গে গোসল করার সময়ে ভুল করে ভিডিও আপলোড হয়ে গিয়েছিল। কিন্তু এবার বাথরুমে বিকিনি পরা ছবি আপলোড করে বিতর্কে সারা। আর এবারও তাকে সঙ্গ দিলেন তার বোন।
এবেলা পত্রিকার খবরে বলা হয়, দুবাইতে বোন আয়রার সঙ্গে ছুটি কাটাতে গিয়েছেন সারা। আসলে ৬ আগস্ট জন্মদিন পালন করতেই দুবাই যাওয়া তার। কিন্তু পরের দিনই পেটের অসুখে হাসপাতালে ভর্তি হন এই তারকা। হাসপাতাল থেকে ছাড়া পাওয়ার পরে হোটেলের বাথরুমে গিয়ে বোনের সঙ্গে বিকিনি পরে ছবি তোলেন তিনি। সেই ছবিই পোস্ট করেন ইনস্টাগ্রামে।

এই ছবি পোস্ট করার পরেই ইনস্টাগ্রামে সমালোচনার শিকার হন সারা। অনেকে তাকে ‘যৌনকর্মী’ বলেও আক্রমণ করেন। অনেকে আবার বলেন, তিনি যেন দুবাই থেকে না ফেরেন। কিন্তু কোনও কিছুতে কান না দিয়ে আবার আর একটি বিকিনি পরা ভিডিওই ইনস্টাগ্রামে পোস্ট করেন সারা।

সানি লিওনের জীবনী নিয়ে বিতর্ক

নিউজ মিডিয়া ২৪: ডেস্ক : বলিউড অভিনেত্রী সানি লিওনের জীবনী নিয়ে বেরিয়েছে ওয়েব সিরিজ। সিরিজটির নাম করণজিৎ কৌর: দ্য আনটোল্ড স্টোরি অব সানি লিওন। সিরিজটি প্রচার হতেই এর নাম নিয়ে শুরু হয়েছে বিতর্ক। তবে কেউ কেউ একে প্রচারের একটি কৌশল হিসেবেও দেখছেন।
সানি লিওনের আসল নাম করণজিৎ কৌর ভোরা। ‘কৌর’ শব্দটি শিখ সম্প্রদায়ের লিঙ্গ সমতার প্রতীক হিসেবে ব্যবহার করে। এটি সানি লিওনের নামের সঙ্গে ব্যবহার করায় এই সম্প্রদায়ের লোকেরা খেপেছে। তাদের মতে, সানি লিওনের জীবনীভিত্তিক ওয়েব সিরিজের সঙ্গে এই শব্দটি ব্যবহার করায় তাদের ধর্মীয় অনুভূতি আহত হয়েছে।
১৬ জুলাই জি ফাইভ নামের অনলাইন স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্মে সিরিজটির প্রথম পর্ব প্রকাশিত হয়। এরপরই শুরু হয় বিতর্ক। শিখ রাজনীতিবিদ মাজিন্দ্র সিং সিরসা জি ফাইভের মালিক সুভাষ চন্দ্রকে একটি চিঠি পাঠান। সেখানে ওই ওয়েবসাইট থেকে এই সিরিজটি সরিয়ে ফেলতে বলেন মাজিন্দ্র। অথবা সানি লিওনের জীবনীভিত্তিক ওয়েব সিরিজের নাম থেকে কৌর শব্দটি মুছে দিতে বলেন। কিন্তু সুভাষ চন্দ্র জানিয়েছেন, জীবনীটি সানি লিওনের। তাই এর নাম পরিবর্তন হতে পারে না।
এদিকে সিরিজটির পরিচালক আদিত্য দত্ত স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছেন, প্রত্যেক অভিনেত্রীর তাঁর প্রকৃত নাম ব্যবহারের অধিকার আছে। তিনি বলেন, ‘আমার অবাক লাগে এই আধুনিক যুগেও নিজের পরিবারের নাম নিজের নামের সঙ্গে ব্যবহার করতে বাধা দেওয়া হচ্ছে। এটা একজনের জন্মগত অধিকার। কীভাবে এটিকে পরিবর্তন করা যায়? এবং কেন করা হবে?’
সানি লিওনের জন্ম কানাডায়। সেখানকার প্রবাসী পাঞ্জাবি পরিবারের মেয়ে তিনি। ২০০০ সালের শুরুর দিকে তিনি পর্নো ইন্ডাস্ট্রিতে ঢুকে পড়েন। পরবর্তী সময়ে অভিনেত্রী হিসেবে বলিউডে নাম লেখান তিনি। সূত্র: বিবিসি।

রেহামের আত্মজীবনীতে শাহরুখের প্রশংসা

নিউজ মিডিয়া ২৪: ডেস্ক: ক্রিকেট তারকা থেকে পাকিস্তানের অন্যতম শীর্ষ রাজনীতিক বনে যাওয়া ইমরান খান সম্পর্কে বিস্ফোরক কিছু তথ্য কয়েকদিন আগেই তুলে ধরেছিলেন তার সাবেক স্ত্রী রেহাম খান। আত্মজীবনীতে ইমরানের একাধিক বিতর্কিত প্রসঙ্গ তুলে ধরেছেন তিনি। ইমরান ছাড়া আরও অনেক ব্যক্তি সম্পর্কেই তিনি বিষোদগার করেছেন। তবে একমাত্র বলিউড অভিনেতা শাহরুখ খান পেয়েছেন রেহামের তুমুল প্রশংসা।
রেহামের ৪৪৫ পৃষ্ঠার আত্মজীবনী প্রকাশের আগেই রীতিমত সাড়া ফেলে দিয়েছে। এই আত্মজীবনীতে একাধিক তথ্য সামনে এসেছে। সেই সমস্ত অধ্যায়ের মধ্যে অন্যতম শাহরুখ খান। কিন্তু শাহরুখের সঙ্গে রেহামের যোগ কোন সূত্রে? এর উত্তর দিয়েছেন রেহাম নিজেই। ২০০৮ সালে শাহরুখের সঙ্গে যোগাযোগ হয় রেহামের। সেই সময় একটি নিউজ চ্যানেলের কর্মী ছিলেন রেহাম। কাজের সূত্রে শাহরুখের সঙ্গে তার দেখা হয়।
একটি বিশেষ বিজ্ঞাপনে শাহরুখ ও রেহাম একই সঙ্গে প্রকাশ্যে আসেন। সেই বিজ্ঞাপনও বেশ জনপ্রিয় হয় বলে আত্মজীবনীতে তুলে ধরেছেন রেহাম। শাহরুখ সম্পর্কে কথা বলতে গিয়ে রেহাম জানিয়েছেন, শাহরুখের পেশাদারিত্ব, বন্ধুত্ব সুলভ আঙ্গভঙ্গি, এবং মার্জিত ব্যবহারে তিনি মুগ্ধ হন। রেহাম বলছেন, এক মধ্যবিত্ত পরিবারের ভদ্র সন্তান যেমন হন, শাহরুখের ব্যক্তিত্ব তেমনই।
শাহরুখের সঙ্গে লন্ডন মেলা নামের একটি ইভেন্টেও পরে দেখা হয় রেহামের। সেখানেও তিনি শাহরুখের ব্যক্তিত্ব দেখে মুগ্ধ হয়ে যান।

উল্লেখ্য এর আগে ইমরান খান সম্পর্কে আত্মজীবনীতে বিভিন্ন কথা তুলে ধরতে গিয়ে রেহাম তার প্রাক্তন স্বামীর একাধিক অবৈধ প্রেম ও অবৈধ সন্তান রয়েছে বলে অভিযোগ তোলেন।

অভিনেত্রী রিতা ভাদুরী মারা গেছেন

নিউজ মিডিয়া ২৪: ডেস্ক: প্রবীণ অভিনেত্রী রিতা ভাদুরী আর নেই। দীর্ঘদিন অসুস্থ থাকার পর আজ মঙ্গলবার মারা যান এই অভিনেত্রী। ভারতের টিভি সিরিয়ালে জনপ্রিয় মুখ ছিলেন রিতা ভাদুরী।
অভিনেতা শিশির শর্মা ফেসবুকে একটি পোস্টে জানিয়েছেন, ‘অত্যন্ত দুঃখের সঙ্গে জানাচ্ছি, রিতা ভাদুরী আর আমাদের মাঝে নেই। তিনি দীর্ঘদিন ধরে কিডনি সংক্রমণ রোগে ভুগছিলেন এবং মুম্বাইয়ের সুজয় হাসপাতালে মারা যান। আজ ভারতীয় সময় দুপুরে আন্ধেরির চাকালার পারশিয়াওরায় তাঁর শেষকৃত্য অনুষ্ঠান হবে। একজন সুন্দর মনের মানুষ ছিলেন তিনি।’ ‘মা, আমরা তোমাকে মিস করব’ বলেও উল্লেখ করেছেন শিশির শর্মা।

এনডিটিভির খবরে জানা যায়, ষাটের দশকে অভিনয় শুরু করেন রিতা ভাদুরী। বর্তমানে তিনি এক বেসরকারি চ্যানেলের সিরিয়াল ‘নিমকী মুখিয়া’ অভিনয় করছিলেন। রিতা গুজরাটি সিরিজসহ বেশ কিছু আঞ্চলিক ছবিতে অভিনয় করেন। ভিরাসাত, রাজা, হিরো নাম্বার ওয়ান, কাভি হা কাভি না, কিয়া কেহনাসহ বেশ কিছু বলিউড ছবিতে কাজ করেছেন রিতা। তিনি ১৯৯৫ সালে ‘রাজা’ ছবির জন্য ফিল্মফেয়ার সেরা পার্শ্ব অভিনেত্রীর মনোনয়ন পান। রিতা সর্বশেষ বলিউড ছবি ২০০২ সালে ‘দিল ভিল পেয়ার ভিয়ার’ ও ২০০৩ সালে ‘মে মাধুরী দিক্ষীত বান্না চাহতি হুন’ অভিনয় করেন।

এ ছাড়া তিনি ২০টিরও বেশি টিভি সিরিয়ালে কাজ করেছেন। ‘সারাভাই ভার্সেস সারাভাই’, ‘আমানত’, ‘কুমকুম’সহ বিভিন্ন সিরিয়ালে কাজ করেছেন তিনি। মূলত রিতা সিরিয়ালগুলোতে দাদিমা চরিত্রে বেশি অভিনয় করেছেন। তাই তিনি দাদিমা হিসেবেই বেশি পরিচিতি পেয়েছিলেন।