জাফরুল্লাহর বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগে আরেক মামলা

নিউজ মিডিয়া ২৪: সাভার: গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ও ট্রাস্টি ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীর বিরুদ্ধে চাঁদাবাজির অভিযোগে আবারও একটি মামলা হয়েছে।
গতকাল শুক্রবার রাতে আশুলিয়ার ডেন্ডাবর এলাকার বাসিন্দা হাসান ইমাম বাদী হয়ে ওই মামলা দায়ের করেন।
চাঁদাবাজি, ভাঙচুর, জমি দখল ও সাইনবোর্ড চুরির অভিযোগে ডা. জাফরুল্লাহসহ তিনজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরো ৩০ জনকে আসামি করা হয়েছে।
মামলার অন্য আসামিরা হলেন, গণবিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার দেলোয়ার হোসেন ও গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের পরিচালক সাইফুল ইসলাম শিশির।
এর আগে গত ১৫ অক্টোবর কোটি টাকা চাঁদা দাবির অভিযোগ এনে আশুলিয়া থানায় একটি মামলা দায়ের করেন মানিকগঞ্জের হরিরামপুর থানার খামারহাটি গ্রামের মোহাম্মদ আলী।
ওই মামলাতেও গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য জাফরুল্লাহসহ মোট চারজনকে আসামি করা হয়।
আশুলিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রিজাউল হক ডা. জাফরুল্লাহর বিরুদ্ধে দায়ের করা মামলার বিষয়টি জানান।

১০ বছরেই সেরা ফটোগ্রাফার পুরস্কার

নিউজ মিডিয়া ২৪: ডেস্ক: বন্যপ্রাণীর ফটোগ্রাফি নিয়ে ব্রিটেনের ন্যাচরাল হিস্টোরি মিউজিয়াম প্রতিযোগিতায় ভারতের আর্শদীপ সিং (১০) ২০১৮ ওয়াইল্ডলাইফ ফটোগ্রাফারের পুরস্কার লাভ করেছে।
প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়া তার ফটোগ্রাফিটির নাম ‘পাইপ আওলস’। ছবিটিতে দেখা যায় একটি পাইপের মধ্যে দুটি প্যাঁচা উঁকি মেরে আছে।
পুরস্কারে জুনিয়রদের তিনটি ক্যাটাগরি ছিল। ১০ বছর এবং তার নিচে, ১১ থেকে ১৪ বছর এবং ১৫ থেকে ১৭ বছর। আর্শদীপ পুরস্কার পেয়েছে ১০ বছর ক্যাটাগরিতে। আর্শদীপ সিং ফটোগ্রাফির কাজ শুরু করে ৬ বছর বয়সে।
সে প্রায়ই তার পিতা রণদীপ সিংয়ের সঙ্গে ছবি তুলতে যেত। তার পিতাও একজন খ্যাতিমান ফটোগ্রাফার। একদিন পাঞ্জাবের কুপারথালা দিয়ে গাড়ি চালিয়ে যাওয়ার সময় আর্শদীপ দেখতে পায়, দুটি প্যাঁচা একটি পাইপের ভেতর থেকে উঁকি মেরে আছে।
সে তার পিতাকে গাড়ি থামাতে বলল। তারপর তার পিতার ক্যামেরা গাড়ির অর্ধেক নামানো জানালার কাচের ওপর দিয়ে বাইরে তাক করে ছবিটি তুলে ফেলল।

পরাজয়টা আমরা খুব বেশি নিতে পারি না: মাশরাফি

নিউজ মিডিয়া ২৪: ঢাকা: একটা সময়ে জিম্বাবুয়ে ছাড়া বাকিদের সঙ্গে ক্রিকেটীয় লড়াইয়ে সেভাবে পেরে উঠত না বাংলাদেশ দল। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে দেশে এবং বাইরে দুর্দান্ত খেলছে টাইগাররা। ক্রিকেট বিশ্বের পরাশক্তিধর দলগুলোর সঙ্গে পাল্লা দিয়েই লড়াই করছে বাংলাদেশ। যে কারণে জিম্বাবুয়ের মতো দুর্বল দলের সঙ্গে পরাজয় এখন কেউই মেনে নিতে পারেন না। এমনটিই বলছেন বাংলাদেশ ওয়ানডে দলের অধিনায়ক মাশরাফি বিন মুর্তজা।
রোববার থেকে শুরু হবে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ। তার আগে শনিবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে ম্যাচ পূর্ব সংবাদ সম্মেলনে মাশরাফি বলেন, ‘জিম্বাবুয়ে সিরিজে জয়-পরাজয় যাই হোক তা মেনে নিয়ে আমরা হয়ত তিন থেকে চারটা প্লেয়ারকে খেলাতে পারতাম। তবে আমাদের কালচারে এটা সবাই কিভাবে নেবে সেটা মেটার করে। কারণ হারটা আমরা খুব সহজে নিতে পারি না। যখন টিম সিলেকশন হয় তখন এই জায়গাটায় আমাদের চিন্তায় থাকতে হয়। এটা নিয়ে আলোচনা না হলেও ব্যাকআপ মাইন্ডে অনেক কিছু থাকে।’
বাংলাদেশের অন্যতম সেরা এই অধিনায়ক আরও বলেন, ‘অন্য দেশে বিশ্বকাপের মতো বড় আসরের আগে তারা কিছু প্লেয়ারকে দেখে নিতে চায়। তখন তারা জয়-পরাজয়ের চেয়ে খেলোয়াড় তৈরি করে নেয়ায় বেশি গুরুত্ব দেয়। তবে আমাদেরও সেই মাইন্ড সেটাপে পরিবর্তন আসছে।’

২০১৯ সালে বিশ্বকাপ। তার আগে দলে ব্যাকাপ তৈরি করতে ঘরোয়া লিগের নিয়মিত পারফর্মার ফজলে মাহমুদ রাব্বিকে জিম্বাবুয়ে সিরিজে দলে নেয়া হয়েছে। দলে ফেরানো হয়েছে পেস বোলিং অলরাউন্ডার সাইফউদ্দিনকে। দলে এসেই যে তারা ঘরোয়া ক্রিকেটের মতো রান পাবেন তা কিন্তু নয়।
এমনটি জানিয়ে মাশরাফি বলেন, ‘আসলে ঘরোয়া ক্রিকেটে একজন রান করে আসলেও আন্তর্জাতিকে এসেই কিন্তু সে রান পাবে না। তাকে সময় দিতে হবে। পরিবেশের সঙ্গে মানিয়ে নিতে হবে। এটা আমাদেরও মেনে নিতে হবে। হঠাৎ করেই তো আর ফল পাওয়া যাবে না।’

আ.লীগের দু’গ্রুপের দ্বন্দ্বে দীপু মনির জনসভা পন্ড, টাঙ্গাইলে চরম উত্তেজনা

নিউজ মিডিয়া ২৪: টাঙ্গাইল: দলীয় মনোনয়ন কে কেন্দ্র করে টাঙ্গাইলে পন্ড হয়ে গেছে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারন সম্পাদক ও সাবেক পররাষ্ট্র মন্ত্রী ডা. দীপু মনির জনসভা। গোপালপুর পৌর শহরে জুতা মিছিল বের করেছে উত্তেজিত দলীয় নেতাকর্মীরা। এছাড়া গোপালপুর ও ভূঞাপুরে নির্মিত তোরণ ও বিলবোর্ড ভেঙে তাতে আগুন ধরিয়ে দেয়া হয়েছে। স্থানীয় এমপি ও তার ছেলের কুশপুত্তলিকা পুড়িয়ে প্রতিবাদ জানানো হয়েছে। এই অবস্থায় সংঘর্ষের আশঙ্কায় শুক্রবার মধ্যরাতে বন্ধ ঘোষণা করা হয় দীপু মনির জনসভা। কয়েকদফা পিছিয়ে আজ দুপুরে এই জনসভা করার কথা ছিলো।
জানা যায়, গোপালপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের নামে গত ১৩ অক্টোবর উপজেলার হেমনগর কলেজ মাঠে এক নির্বাচনী জনসভা আহবান করা হয়। এতে প্রধান অতিথি করা হয় আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক ও সাবেক পররাষ্ট্র মন্ত্রী ডা. দীপু মনিকে।
কিন্তু আওয়ামী লীগের সংসদ সদস্য খন্দকার আসাদুজ্জামান তার পুত্র খন্দকার মশিউজ্জামান রোমেলকে ওই জনসভায় দলীয় প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা দেবে এমন খবর ছড়িয়ে পড়ে দু’উপজেলাতেই। তখন থেকেই ক্ষোভ দানা বাঁধতে থাকে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী তানভীর হাসান ছোট মনির, ইউনুছ ইসলাম তালুকদার ঠান্ডু ও খন্দকার আশরাফুজ্জামান স্মৃতির লোকজনের মাঝে।
পরে ওই তারিখ পরিবর্তন করে ১৬ অক্টোবর এবং পরবর্তীতে ১৯ অক্টোবর নির্ধারণ করা হয়। কিন্তু দূর্গা পুজার দশমীর কারণে আবারো পিছিয়ে ওই জনসভা পরদিন শনিবার (আজ) দুপুর ২টায় করা হয়। জেলা আওয়ামী লীগ কোন্দল নিরসন করতে অপারগতা প্রকাশ করায় উপজেলা আওয়ামী লীগের সম্মতি ছাড়াই স্থানীয় সংসদ সদস্য খন্দকার আসাদুজ্জামানের একক সিদ্ধান্তে শনিবার জনসভার দিন ঘোষণা দেয়া হয়। এতে আওয়ামী লীগের অপর চার মনোনয়ন প্রত্যাশীর মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দেয়। তাদের অনুসারি নেতাকর্মীরা শুক্রবার সন্ধ্যায় গোপালপুর পৌর শহরে জুতা মিছিল বের করে।
এছাড়াও গোপালপুর ও ভূঞাপুরে নির্মিত তোরণ ও বিলবোর্ড ভেঙে তাতে আগুন ধরিয়ে দেয়। দাহ করা হয় এমপি খন্দকার আসাদুজ্জামান ও তার ছেলে খন্দকার মশিউজ্জামান রোমেলের কুশপুত্তলিকা। মঞ্চ পাহারায় নিয়োজিত রাখা হয় পুলিশ। সন্ধ্যার পর থেকে রাজনৈতিক পরিস্থিতি আরো উত্তপ্ত হতে থাকে। দেখা দেয় বড় ধরনের সংঘর্ষের আশঙ্কা। পরে অবস্থার বেগতিক দেখে মধ্যরাতে বন্ধ হয়ে যায় দীপু মনির জনসভা।
এ বিষয়ে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী ও গোপালপুর উপজেলা চেয়ারম্যান ইউনুস ইসলাম তালুকদার ঠান্ডু বলেন, জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগকে বাদ দিয়ে স্থানীয় সংসদ সদস্য খন্দকার আসাদুজ্জামান নিজ পুত্র মশিউজ্জামান রোমেলকে দলীয় প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা দেয়ার জন্য কৌশলে এ জনসভার আয়োজন করেছে। জনগণ এ ষড়যন্ত্র মেনে নেবে না। তাই এ জনসভাকে দলীয় নেতাকর্মীরা প্রত্যাখান করেছে।
অপর মনোনয়ন প্রত্যাশী ও জেলা আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক তানভীর হাসান ছোট মনি বলেন, এমপি খন্দকার আসাদুজ্জামান জেলা ও উপজেলা আওয়ামী লীগকে পাশ কাটিয়ে নিজের অযোগ্য পুত্রকে দলের প্রার্থী হিসেবে কৌশলে ঘোষণা দেয়ার জন্য একজন কেন্দ্রীয় নেত্রীকে ভুল বুঝিয়ে শনিবার জনসভার আয়োজন করে। জনগণ এ ষড়যন্ত্রমূলক জনসভাকে প্রত্যাখান করেছে।

গোপালপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি হালিমুজ্জামান তালুকদার জানান, স্থানীয় সংসদ সদস্য এ জনসভা চাপিয়ে দিয়েছে। তাই দলীয় নেতাকর্মীদের মধ্যে অসন্তোষ ও চাপা উত্তেজনা বিরাজ করছে। সন্ধ্যায় তারা সংসদ সদস্য ও তার পুত্রের বিরুদ্ধে জুতা মিছিল করেছে। জনসভা পন্ডের বিষয়ে কথা বলতে খন্দকার মশিউজ্জামান রোমেলের সেল ফোনে বার বার কল দেয়া হলেও তিনি রিসিভ করেননি।
গোপালপুর থানার অফিসার ইনচার্জ হাসান আল মামুন বলেন, জনসভার নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য পুলিশের পক্ষ থেকে সব ধরনের ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছিল। কিন্তু আয়োজকরা স্বেচ্ছায় তাদের কর্মসূচি প্রত্যাহার করে নিয়েছে।

পদ্মা ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্তদের ঋণের শর্ত শিথিল করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক

নিউজ মিডিয়া ২৪: ঢাকা : শরীয়তপুরের নড়িয়াসহ কয়েকটি উপজেলা সম্প্রতি পদ্মা নদীর ভাঙনের কবলে পড়েছে। ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্তদের ঋণের শর্ত শিথিল করেছে বাংলাদেশ ব্যাংক।
বুধবার কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ব্যাংকিং প্রবিধি ও নীতি বিভাগ এ সংক্রান্ত একটি নির্দেশনা জারি করে সব বাণিজ্যিক ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহীদের কাছে পাঠিয়েছে।
নির্দেশনায় বলা হয়েছে, সম্প্রতি শরীয়তপুর জেলার নড়িয়া উপজেলাসহ কয়েকটি উপজেলা পদ্মা নদীর ভাঙনের শিকার হয়েছে। এতে বাজার, ঘর বাড়ি, মসজিদসহ বিভিন্ন স্থাপনা, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান এবং ব্রিজ-কালভার্ট ইতোমধ্যে নদীগর্ভে বিলীন হয়ে গেছে। ভাঙন কবলিত এলাকার ঋণগ্রহীতা কৃষি এবং এসএমই খাতের উদ্যোক্তারা ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় নির্ধারিত সময়ে ঋণ পরিশোধে সমস্যা হবে।
তাই নদী ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্ত ঋণগ্রহীতাদের স্বাভাবিক অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডে ফিরিয়ে আনতে তাদের পুনর্বাসনে আর্থিক নীতি সহায়তা প্রদানের নির্দেশ দিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।
এর মধ্যে রয়েছে: নদী ভাঙনে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষক ও উদ্যোক্তারা যাতে ঋণ খেলাপিতে পরিণত না হন সে লক্ষ্যে ব্যাংকার-গ্রাহক সম্পর্কের ভিত্তিতে, ক্ষেত্র বিশেষে ডাউন পেমেন্ট এর শর্ত শিথিল করা। সর্বোচ্চ ছয় মাসের গ্রেস পিরিয়ডে কৃষি এবং এসএমই খাতের ঋণ পুনঃতফসিল করা। এছাড়া চাহিদার ভিত্তিতে নতুন ঋণ সুবিধা পেতে পারেন সে লক্ষ্যে কোন অর্থ জমা ব্যতিরেকেই পুনঃতফসিল পরবর্তী নতুন ঋণ সুবিধা প্রদান করা।
ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার কৃষকদের ক্ষতি কাটিয়ে ওঠার নিমিত্তে এবং আবাদযোগ্য (যদি থাকে) স্থানসমূহে কৃষি কর্মকাণ্ড অব্যাহত রাখতে বিশেষ কৃষি ঋণ হিসেবে ৪% রেয়াতি হার সুদে আমদানি বিকল্প ফসলসমূহে (ডাল, তৈলবীজ, মসলা ও ভুট্টা) কৃষি ও পল্লী ঋণ ঋণ প্রদান করা।
চলতি ২০১৮-১৯ অর্থবছরে নদী ভাঙনে সম্পূর্ণ বিলীন হওয়া নিঃস্ব কৃষকদের ব্যাংক ঋণের সুদ মওকুফের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা।
নতুন করে কোনো সার্টিফিকেট মামলা দায়ের না করা। একই সঙ্গে দায়েরকৃত সার্টিফিকেট ছয় মাস বন্ধ রেখে প্রয়োজনে সোলেনামার মাধ্যমে মামলার নিষ্পত্তি করার পরামর্শ নিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।
নতুন ঋণ পেতে কোনোরূপ হয়রানির শিকার না হন সে বিষয়ে নিবিড়ভাবে তদারকি করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। এসব পুনঃতফসিলিকরণ ও পুনঃতফসিল পরবর্তী নতুন ঋণ প্রদান সুবিধা আগামী ২০১৯ সালের মার্চ পর্যন্ত বলবৎ থাকবে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

মেয়ের মৃতদেহ কাঁধে নিয়ে ৮ কি.মি. হেঁটে হাসপাতালে বাবা

নিউজ মিডিয়া ২৪: ডেস্ক: ময়নাতদন্তের জন্য ৭ বছরের মেয়ের মৃতদেহ কাঁধে করে নিয়ে হাসপাতালে এলেন হতভাগ্য এক বাবা। গাড়ি ভাড়া করে লাশ নিয়ে যাবার সামর্থ ছিলনা তার।
ভারতের উড়িষ্যার গজপতি জেলায় মর্মান্তিক এই ঘটনাটি ঘটেছে। সূত্র: এনডিটিভি
স্থানীয় একটি টিভি চ্যানেলে এ ঘটনার একটি সচিত্র খবর প্রকাশ হলে উরিষ্যায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।
এরপর গতকাল ভারতের বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদটি প্রকাশ হয়।
এ ঘটনার পর সরকারের তীব্র সমালোচনা করছেন বিভিন্ন রাজনৈতিক সংগঠন।
এ কারণে গজপতির জেলাপ্রশাসককে তলব করেছে দেশটির রাজ্য সরকার।
ভারতীয় সংবাদ মাধ্যম এনডিটিভিতে প্রকাশ, গত ১১ অক্টোবর তিতলি ঘূর্ণিঝড়ের সময় গজপতি জেলার আতঙ্কপুর গ্রামে নিখোঁজ হয়ে যায় মুকুন্দ দোরার ৭ বছরের মেয়ে ববিতা।
পরে বুধবার একটি নালার মধ্যে ববিতার মৃতদেহটি উদ্ধার হয়।
হতভাগ্য পিতা মুকুন্দ সংবাদমাধ্যমে বলেন, ‘পুলিশ এসে মৃতদেহের ছবি তুলে নিয়ে যায় আর মৃতদেহ ময়না তদন্তের জন্য ভবানীপাটনা হাসপাতালে নিয়ে যেতে হবে বলে যায়।’
কিন্তু পুলিশ মৃতদেহ নিয়ে যাওয়ার কোনো ব্যবস্থা না করে তাকেই হাসপাতালে মেয়ের মৃতদেহ নিয়ে যেতে হবে নির্দেশ দিয়ে যায় বলে অভিযোগ করেন মুকুন্দ দোরা।
মুকুন্দ আরও বলেন, ‘আমি গরিব মানুষ। গাড়ি ভাড়া করার সামর্থ আমার নেই। ফলে মেয়ের দেহ বস্তায় ভরে কাঁধে চাপিয়েই হাসপাতালে নিয়ে যাই।’
উরিষ্যার ত্রাণ দফতরের এক মুখপাত্র দেশটির সংবাদ মাধ্যমে জানিয়েছেন, ঘূর্ণিঝড় তিতলির সময় ববিতার মৃত্যু হয়।
উল্লেখ্য, ২০১৬ সালে উড়িশার কালাহান্ডি জেলাতেও প্রায় এরকমই একটি ঘটনা ঘটেছিল। হাসপাতাল থেকে স্ত্রীর মৃতদেহ কাঁধে নিয়ে ১০ কিলোমিটার পায়ে হেঁটে ঘরে ফিরেছিলেন এক ব্যক্তি।

নির্বাচন হবে কিনা সংশয় রয়েছে: এরশাদ

নিউজ মিডিয়া ২৪: ঢাকা: জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ বলেছেন, আগামী নির্বাচন হবে কিনা তা নিয়ে সংশয় রয়েছে। মানুষ পরিবর্তন চায়। ছাত্ররা আন্দোলনের সময় বলেছিল রাষ্ট্রযন্ত্রের মেরামত প্রয়োজন। আমরাও তাই চাই।
আজ শনিবার দুপুরে সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে সম্মিলিত জাতীয় জোট আয়োজিত মহা সমাবেশে সভাপতির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।
সমাবেশে আরো বক্তৃতা করেন দলেন সিনিয়র কো চেয়ারম্যান রওশন এরশাদ, কো চেয়ারম্যান জি এম কাদের, মহাসচিব রুহুল আমিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ আবু হোসেন বাবলাসহ দলের সিনিয়র নেতারা।

দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী

নিউজ মিডিয়া ২৪: ঢাকা: সৌদি আরবে চার দিনের রাষ্ট্রীয় সফর শেষে শুক্রবার রাতে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এদিন প্রধানমন্ত্রী মক্কায় জুমার নামাজ আদায় করেন। আগের রাতে সফরসঙ্গীদের নিয়ে ওমরাহ পালন করেন তিনি।
শুক্রবার দিবাগত রাত ১টা ২০ মিনিটে বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি ভিভিআইপি ফ্লাইটে ঢাকার হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছান তিনি।
সৌদি বাদশাহ সালমান বিন আবদুল আজিজ আল সৌদের আমন্ত্রণে গত মঙ্গলবার ওই সফরে গিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী।

মাজার জিয়ারতের নামে ঐক্যফ্রন্ট বিশৃঙ্খলা করলে ব্যবস্থা: কাদের

নিউজ মিডিয়া ২৪: ঢাকা: নবগঠিত জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট নেতারা সিলেটে মাজার জিয়ারতের নামে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।
শনিবার দুপুরে আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে দলের সম্পাদকমণ্ডলীর সভা শেষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি এ কথা বলেন।
ওবায়দুল কাদের বলেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট একটি সাম্প্রদায়িক অশুভ শক্তির অ্যালায়েন্স। এই অ্যালায়েন্সের সঙ্গে কোনো সংলাপে প্রস্তুত নয় আওয়ামী লীগ।
তিনি আরো বলেন, নির্বাচন কমিশন বলেছে, নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে নির্বাচনের শিডিউল ঘোষণা হবে, তার মানে বাকি আছে ১০-১২ দিন। এর মধ্যে কীসের সংলাপ? সংলাপ করার সময় কোথায়? এই অ্যালায়েন্সের সঙ্গে কোনো সংলাপে প্রস্তুত নয় আওয়ামী লীগ।
সিলেটে পুলিশের অনুমতি না পেলেও ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশ করার ঘোষণা প্রসঙ্গে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, নির্বাচনের আগে সিলেটের মাজার জিয়ারত আমাদের দেশের রাজনৈতিক ট্র্যাডিশন। জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট যদি মাজার জিয়ারতের জন্য সেখানে যায়, সেটা কোনো বিষয় নয়। কিন্তু মাজার জিয়ারতের নামে কোনো প্রকার নাশকতা-সহিংসতা সৃষ্টির পরিকল্পনা যদি থাকে তাহলে উদ্ভূত পরিস্থিতিতেই আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী নির্ধারণ করবে কী ধরনের পদক্ষেপ নেবে।

সিধা পথে আসুন, অন্য কোনো পথ খোলা নেই: সরকারকে ফখরুল

নিউজ মিডিয়া ২৪:ঢাকা: সুষ্ঠু ও অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের জন্য সরকারকে অবিলম্বে সিধা পথে আসার আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, দেশের মানুষ পরিবর্তন চায়। কিন্তু সেটা হতে হবে গণতান্ত্রিক পদ্ধতিতে এবং নির্বাচনের মাধ্যমে।
আজ শনিবার দুপুরে ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি ভবনের স্বাধীনতা হলে এক সভায় তিনি প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব বলেন। বিএনপির চেয়ারপারসন কারাবন্দি বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবিতে এই সমাবেশের আয়োজন করে জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি-জাগপা।
সংগঠনের সহ-সভাপতি ব্যারিস্টার তাসমিয়া প্রধান এতে সভাপতিত্ব করেন।
নির্বাচন কমিশনের সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ডের দিকে ইঙ্গিত করে ফখরুল বলেন, নির্বাচন কমিশন আজকে বিভক্ত, তারা (নির্বাচন কমিশন) এখন ভিন্ন কথা বলছে। সেখানে মতবিরোধ তৈরি হয়েছে। একজন কমিশনার যে প্রস্তাব দিয়েছেন সেই প্রস্তাবকে অন্য কমিশনার বলছে অসাংবিধানিক। আমরা বলব নির্বাচন কমিশনকে হতে হবে সম্পূর্ণ নিরপেক্ষ এবং স্বাধীন। তা না হলে দেশে কোনো সুষ্ঠু নির্বাচন হবেনা।
সমাবেশে আরো বক্তব্য দেন বিএনপিরস্থায়ী কমিটির সদস্য ও বিশ দলীয় জোটের সমন্বয়ক নজরুল ইসলাম খান, এনপিপির চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ, জাগপা সাধারণ সম্পাদক খন্দকার লুৎফর রহমান, আসাদুর রহমান খান, যুব জাগপার নেতা প্রকৌশলী রাশেদ প্রধান সহ অনেকেই।
মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, দলের নেতাকর্মীদের বিরুদ্ধে গায়েবী মামলার সংখ্যা ৫ হাজার ছাড়িয়েছে। বহু নেতাকর্মীকে আসামী করা হয়েছে। অনেকেই ইতিমধ্যে পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছেন। এভাবে একটি দলের ওপর নির্যাতন করলে কীভাবে সুষ্ঠু রাজনীতি হয়। নির্বাচনই বা সুষ্ঠু কেমনে হবে।
বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমরা বলছি- অবিলম্বে দেশে সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের জন্য সিধা পথে আসুন। রাজনৈতিক দলগুলোর সাথে সংলাপে বসুন। তা না হলে অন্য কোনো পথ নেই। এই একটাই পথ।
বেগম খালেদা জিয়াকে মিথ্যা মামলায় কারাগারে বন্দি করার পর এখন তাকে সুচিকিৎসাও দেয়া হচ্ছেনা বলে অভিযোগ করেন মির্জা ফখরুল। তিনি বলেন, আজকে গণতন্ত্রের কথা বলার কারণেই সরকারের অনিয়মের বিরুদ্ধে, দুর্নীতির বিরুদ্ধে কথা বলার কারণেই তাকে জেল খানায় বন্দি করা হয়েছে ।